জৈন্তাপুরে সকল হাটে ভারতীয় ও স্থানীয় গরু-মহিষ বিক্রি নিষিদ্ধ দাবী

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি ::

আমরা স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে চাই, সবার বাঁচার অধিকার রয়েছে, বাঁচতে চাই পরিবার, সমাজ ও দেশের সকল নাগরিকদের নিয়ে। আমরা দেখে অবাক হয়ে যাই, সরকার দেশ বাসিকে মরন ব্যাধী করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষাকরার জন্য যেখানে সকল বন্দর গুলোতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরধার করেছে, সেখানে আমাদের সীমান্ত দিয়ে প্রতিনিয়ত চোরাই পথে ভারত থেকে আসছে রোগাক্রান্ত গরু-মহিষ, মাদক এবং পণ্য সামগ্রী রয়েছে দুই দেশের নাগরিকদের অবাধ যাতায়াত এ সকল বিষয় নিয়ে ২২শে মার্চ রবিবার জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও সচেতনতামূলক এবং দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনীয়তার উপর এক জরুরী আলোচনা সভায় অংশগ্রহনকারীরা এসব কথা তুলে ধরেন।

জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ এর সভাপতিত্বে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আমিনুল হক সরকার, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ বশির উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পলিনা রহমান , উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফারুক হোসাইন, ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান, শাহ আলম চৌঃ তোফায়েল, বাহারুল আলম বাহার, আমিনুর রশীদ, মোঃ ইয়াহিয়া(ভারপ্রাপ্ত), আবুল কাহির (ভারপ্রাপ্ত), উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ফারুক আহমদ সহ সরকারী দপ্তরের বিভিন্ন কর্মকর্তাবৃন্দ।

সভাপতির বক্তব্যে জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কামাল আহমদ বলেন, বিশ্ব এখন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত, বাংলাদেশ সরকার ও জনগণ করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য সচেতনতামূলক বিভিন্ন প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় জৈন্তাপুর উপজেলার প্রতিটি নাগরিককে এ ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে সচেতন হতে হবে।

জৈন্তাপুর উপজেলার সবকটি গরু-মহিষের হাঁটে ভারতীয় ও স্থানীয় গরু-মহিষ বিক্রি নিষিদ্ধ করতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নিতে বলেন। পরে তিনি জৈন্তাপুর বাজারে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে পুলিশ প্রশাসন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের নিয়ে বাজার পরিদর্শন ও দেশের এ ক্রান্তিলগ্নে দ্রব্যমূল্যের অতিরিক্ত দাম না রাখার জন্য ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close