সিলেটে করোনা আক্রান্ত সন্দেহের মহিলা হাসপাতাল থেকে উধাও!

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

কয়েক দিন আগে সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন প্রায় ৭০ বছর বয়সী ওই মহিলা। আজ মঙ্গলবার জ্বর নিয়ে চিকিৎসার জন্য সিলেটের দক্ষিণ সুরমার নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে তার লক্ষণ দেখে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে সন্দেহ করেন চিকিৎসকরা। তাকে কয়েকটি পরীক্ষা করিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন তারা। কিন্তু পরীক্ষা করিয়ে আনার কথা বলে ওই মহিলা হাসপাতাল থেকে উধাও হয়ে যান।

পরে অবশ্য চিকিৎসকদের কাছে দেওয়া তার বাড়ির ঠিকানায় সিলেটের সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে। ওই মহিলার বাড়ি মোগলাবাজারের ইসলামপুর এলাকায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল জানান, ১০-১২ দিন আগে ওই মহিলা সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন। জ্বর নিয়ে আজ তিনি নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসকের কাছে যান। সেখানে তার শারীরিক বিবরণ শুনে চিকিৎসকরা তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহ করে কয়েকটি পরীক্ষা করাতে বলেন। পরে ওই মহিলা হাসপাতাল থেকে চলে যান।

ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, ‘‘হাসপাতাল থেকে বিষয়টি অবহিত হয়ে আমরা ওই মহিলার বাড়িতে যোগাযোগ করি। আমরা তাকে বলেছি, আপনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নাও হতে পারেন। কিন্তু সতর্কতার জন্য আপনি শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিটে এসে ভর্তি হন, আমরা আপনাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো। তবে ওই মহিলা হাসপাতালে ভর্তি হতে না আসায় তাকে বাড়িতেই ‘সেলফ কোয়ারেন্টাইনে’ থাকতে বলা হয়েছে। তিনি যেন অন্য কারো সাথে না মিশেন, সেই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’’

সিভিল সার্জন আরো জানান, আগামীকাল আবারও ওই মহিলার সাথে যোগাযোগ করে তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেওয়া এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তির চেষ্টা চালানো হবে।

প্রসঙ্গত, সিলেটের কানাইঘাটের এক দুবাই ফেরত যুবক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে গেল ৪ মার্চ শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালে আইসোলেশনে ছিলেন। পরে রক্তের নমুনা পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়নি। গত রবিবার তার রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট সিলেটে আসে। এরপর তাকে বাড়িতে যাওয়ার ছাড়পত্র দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশে তিন জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। তাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close