ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে দুর্ঘটনায় : ২০ ঘণ্টায় ৯ জেলায় নিহত ২৮

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আগুন লেগে পুড়ে যাওয়া এই মাইক্রোবাস। বিজয়নগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৬ মার্চ। ছবি: বদর উদ্দিনব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আগুন লেগে পুড়ে যাওয়া এই মাইক্রোবাস।

বিজয়নগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৬ মার্চ। ছবি: বদর উদ্দিন২০ ঘণ্টায় দেশের ৯ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৮ জন নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে আজ শুক্রবার বিকেল ৬টা পর্যন্ত হবিগঞ্জ, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ফেনী, কুমিল্লা, বরিশাল, পটুয়াখালী ও পঞ্চগড় জেলায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিদের বরাত দিয়ে প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস মহাসড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার ঘটনায় ১০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হন ৪ জন। আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার কান্দিগাঁও এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। মাইক্রোবাসটি নারায়ণগঞ্জ থেকে সিলেট যাচ্ছিল। মাইক্রোবাসে আরোহী ছিলেন ১৩ জন।

কান্দিগাঁও এলাকায় পৌঁছার পর চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে মাইক্রোবাসটি সড়কের পাশে একটি গাছের সঙ্গে প্রচণ্ড জোরে ধাক্কা খায়। এতে গাড়িটি দুমড়েমুচড়ে গিয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে।আহত লোকজনকে উদ্ধার করে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। শেরপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এরশাদুল হক ভূঁইয়া বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জে কাতারপ্রবাসী ইমন (২৪) মেয়ে দেখতে যাচ্ছিলেন। শেরপুর হাইওয়ে থানায় সাতজন পুরুষ ও একজন নারীর লাশ রয়েছে। আরেকজনের লাশ রয়েছে হাসপাতালে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : বিজয়নগর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে মাইক্রোবাসে আগুন ধরে ৬ জন দগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। মাইক্রোবাসের ৪ জন আরোহী আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলা রামপুরা বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাটিহাতা বিশ্বরোড মোড় হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাইনুল ইসলাম এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন। হতাহত ব্যক্তিরা সবাই মাইক্রোবাসের আরোহী ছিলেন বলে জানা গেছে। নিহত ছয়জনের মধ্যে একজনের পরিচয় জানা গেছে।

তাঁর নাম মো. শাহীন। তিনি মাইক্রোবাসের চালক ছিলেন। বাড়ি নারায়ণগঞ্জে। আহত লোকজনকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। লিমন পরিবহন নামের যাত্রীবাহী বাসটি ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। আর নারায়ণগঞ্জ থেকে সিলেটের দিকে যাচ্ছিল যাত্রীবাহী মাইক্রোবাসটি। বাসটি বেপরোয়া গতিতে চলছিল। বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের পর মাইক্রোবাসে আগুন ধরে যায়। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাটিহাতা বিশ্বরোড মোড় হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাইনুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, বাসটি আটক করা হয়েছে। বাসচালক পলাতক। লাশগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। আহত লোকজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস মহাসড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সিলেট, ৬ মার্চ। ছবি: আনিস মাহমুদহবিগঞ্জের নবীগঞ্জে যাত্রীবাহী মাইক্রোবাস মহাসড়কের পাশে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খাওয়ার ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সিলেট, ৬ মার্চ। ছবি: আনিস মাহমুদময়মনসিংহ : ভালুকা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় পিকআপের চালকসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজন আহত হন। আজ ভোরে উপজেলার মেহরাবাড়ী এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত দুজন হলেন নেত্রকোনার ঠাকুরাকোনা গ্রামের পিকআপ ভ্যানের চালক রাজন রবিদাস (২২) ও নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার তালাশ কোর্ট এলাকার আবদুস সালামের ছেলে মো. আজিম (২৩)।

ফায়ার সার্ভিস ও হাইওয়ে পুলিশ সূত্র জানায়, শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার মেহরাবাড়ী এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে একটি বড় পিকআপের সঙ্গে ধাক্কা খায় মাছভর্তি আরেকটি ছোট পিকআপ। এতে ছোট পিকআপের সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে রাজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন। এ সময় আরও তিনজনকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়। সেখানে নেওয়ার পর চিকিৎসক আজিম নামের আরেক জনকে মৃত ঘোষণা করেন। ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তিথি জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত দুজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। আরেক জনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। ভালুকা হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মাহমুদ আদনান বলেন, মাছভর্তি ছোট পিকআপের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অপর একটি বড় পিকআপের সঙ্গে ধাক্কা লাগালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পিকআপ দুটি জব্দ করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close