কোম্পানীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে স্বাধীনতা রক্ষার অঙ্গীকার

সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট জেলা শাখার সভাপতি ও পূর্ব জাফলং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান লেবু বলেছেন, দেশকে এগিয়ে নিতে এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে বিভেদ হানাহানি, দ্বন্দ্ব, কোন্দল, নিরসন করতে হবে। দেশের স্বাধীনতা, স্বার্বভৌমত্ব রক্ষায় সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, দেশের মানুষ আমাদের পাশে ছিল বলে আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হয়েছি। একুশ বছর আমরা নিগৃহীত ছিলাম। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা আমাদের মর্যাদা ফিরিয়ে পেয়েছি। রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা এনেছি, এই স্বাধীনতা রক্ষা করতে হবে।

রোববার দুপুরে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে এক বিরাট মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে একথাগুলো বলেন।

সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের কোম্পানীগঞ্জের আহ্বায়ক মতি লাল মোহন্তের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল হোসেনের পরিচালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট রফিকুল হক, জেলা সদস্য সচিব তোতা মিয়া, সোয়েব আহমদ, আব্দুল মালিক।

এসময় লুৎফুর রহমান লেবু আরো বলেন, এশিয়া মহাদেশের মধ্যে আমাদের এখন অনেক এগিয়ে। স্বাধীনতা পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু সহ তার পরিবার ও জাতীয় চার নেতাকে নির্মমভাবেহত্যা করে ঘাতকরা চেয়েছিল এদেশকে নেতৃত্ব শূন্য করতে। কিন্তু তাদের সে উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন হয়নি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এখন অনেক দূর এগিয়েছে। এই সরকারের আমলে মুক্তিযোদ্ধারা ২ হাজার টাকা থেকে বর্তমানে ১২ হাজার টাকা সম্মানিত ও ফ্রি রেশন পাচ্ছেন। ১৬ লাখ টাকা ব্যায়ে বিনাসূদে বাড়ি করার ঋণ পাচ্ছে। তিনি আগামী প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেনতায় গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইমজা সিলেটের সাবেক সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, কোম্পানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. আবুল হোসেন, কোম্পানীগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নুর হোসেন, মজনু মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল এ রফিক, হাতিম আলী, আবু তাহের, আলকাছ আলী, কবির মিয়া, আব্দর আলী, আব্দুল আওয়াল, হাবিবুর রহমান, আব্দুল করিম, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের নেতা কবির হোসেন, আবু আহমদ, মোস্তফা আহমদ কাচা, সোহেল আহমদ প্রমুখ।

— প্রেস বিজ্ঞপ্তি ।।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close