‘এ বছরে প্রধানমন্ত্রীর নতুন উপহার স্ট্যার্ট অব বাংলাদেশ’

সুরমা টাইমস ডেস্ক ::

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, মুজিববর্ষে লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্টের আওতায় ১০০টি সার্ভিস জনগণকে দেওয়া হবে যেখানে সুবিধা পাবে ১০ কোটি মানুষ। এ ছাড়াও এ বছরে প্রধানমন্ত্রীর নতুন উপহার স্ট্যার্ট অব বাংলাদেশ। যেখানে তরুণরা চাকরি না খুঁজে চাকরি দেবে। উদ্যোক্তা সৃষ্টি করবে।

আজ শুক্রবার বিকেলে কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার দাসিয়ারছড়া বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে নির্মাণাধীন ডিজিটাল সার্ভিস ইমপ্লয়ন্টমেন্ট এন্ড ট্রেনিং সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ৬৮ বছরের পিছিয়ে থাকা ছিটমহলের মানুষদের আইসিটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থানের জন্য এই ট্রেনিং সেন্টার মুজিববর্ষে উপহার দেওয়া হলো।

এ ছাড়াও প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মুজিববর্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে প্রযুক্তি নির্ভর বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে ৪০ হাজার ৫০০ আইসিটি লার্নিংয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ২০০৮ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে প্রকল্প দিয়েছেন তার সুযোগ্য সন্তান আইটি উপদেষ্টা সজীব ওযাজেদ জয়ের পরামর্শে ইতিমধ্যে আমরা দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের আইসিটি সেক্টরে ১০ লাখ তরুণ-তরুণী কর্মসংস্থান পেয়েছে। ইতিমধ্যে ৬ লাখ ফ্রিলিয়ান্সার কাজ করছে। সেই সাথে প্রায় ২ লাখ সফটওয়্যার টেকনোলজিতেও কাজ করছে। লক্ষাধিক ছেলে-মেয়ে কল সার্ভিসে কাজ করছেন। ৫০ হাজারও বেশি ছেলে-মেয়ে ই-কমার্সে কাজ করছেন।

ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুমা আরেফীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জিলুফা সুলতানা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেনহাজুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাফর আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম রব্বানী সরকার, ফুলবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ প্রমূখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close