খালেদা জিয়া উন্নত চিকিৎসা নিতে সম্মতি দেননি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া উন্নত চিকিৎসা (অ্যাডভান্সড ট্রিটমেন্ট) নিতে সম্মতি দেননি বলে জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ।

হাই কোর্টে দেওয়া ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়ার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি চিকিৎসা নিতে সম্মত হননি।

বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) আদালতে বিএসএমএমইউর প্রতিবেদন পড়ে শোনান আদালত।

পরে বেলা দুইটায় আদেশের জন্য রেখেছে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কে এম জহিরুল হকের হাই কোর্ট বেঞ্চ।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং দুদকের পক্ষে খুরশীদ আলম খান।

গত রোববার হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের প্রতিবেদন ও চিকিৎসার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে জানাতে প্রতিবেদন চায় বিএসএমএমইউ।

আদালতে দেওয়া প্রতিবেদনে বলা হয়, খালেদা জিয়া উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও আর্থ্রাইটিসে ভুগছেন। এর মধ্যে আর্থ্রাইটিসের ‘অ্যাডভান্সড ট্রিটমেন্ট’ শুরুর বিষয়ে তিনি সম্মতি দেননি। চিকিৎসার জন্য যেসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা দরকার, সেগুলোও করা যাচ্ছে না।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন আদালতকে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন কেন সম্মতি দেননি, সেটা জানতে তার সঙ্গে কথা বলতে চান তিনি। সে জন্য সময়ের আবেদন করেন।

বিচারক বলেন, খালেদা জিয়ার সম্মতি দেওয়া না–দেওয়া তার ব্যক্তিগত বিষয়। পরে তিনি বেলা দুইটায় আদেশের জন্য সময় নির্ধারণ করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দী। গত বছরের এপ্রিল থেকে তিনি বিএসএমএমইউতে চিকিৎসাধীন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close