করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২৪০০

চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট কভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত চীনের মূলভূখন্ডে ২ হাজার ৪০০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৭৭ হাজার।

এছাড়া ৭৯ জন আক্রান্ত হওয়ার পর ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় অন্তত ১২টি শহরকে ‘লকডডাউন’ করে রেখেছে কর্তৃপক্ষ। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন ও ইতালির সরকারি কর্তৃপক্ষের বরাতে এ খবর জানিয়েছে আল জাজিরা ও বিবিসি।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, চীনের সঙ্গে সরাসরি সংযোগ নেই এরকম মানুষদের কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে তারা উদ্বিগ্ন। দূর্বল স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার দেশগুলোতে কভিড-১৯ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক তহবিল গঠনের তাগিদ দিয়েছে সংস্থাটি।

অপরদিকে ইউরোপের সবচেয়ে বেশী ভুক্তভোগী দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে ইতালি। ইতোমধ্যেই কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। আরও আক্রান্ত হওয়ার আশংকায় ১২ শহরের অন্তত ৫০ হাজার মানুষকে স্ব-কোয়ারেনটাইন অবস্থায় থাকার নির্দেশনা জারি করেছে সরকারি কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও, জাপানের ইয়োকহামা বন্দরের কাছাকাছি ১৪ দিন কোয়ারেনটাইন করে রাখা প্রমোদ জাহাজ ডায়মন্ড প্রিন্সেস থেকে কভিড-১৯ আক্রান্ত এক নারীর চলে যাওয়ার ব্যাপারে দুঃখপ্রকাশ করেছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী। দক্ষিণ কোরিয়ায় কভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫৬ তে পৌঁছেছে। নতুন করে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে দেশটিতে।

প্রসঙ্গত, ডিসেম্বরের ৩১ তারিখ থেকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট রোগকে কভিড-১৯ নাম দিয়েছে ডব্লিউএইচও। এই রোগে চীনে ব্যাপক প্রাণহানির পর এখন কোরিয়ান পেনিনসুলায় আঘাত হেনেছে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানিয়েছে, এই রোগে আগে থেকেই শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যায় ভুগছিলেন এমন বয়স্করা বেশী প্রাণ হারাচ্ছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close