৩ মার্চ নির্ভয়ার ধর্ষকদের ফাঁসি

ভারতের দিল্লিতে চলন্ত বাসে ধর্ষণের শিকার হয়ে মারা যাওয়া সেই নির্ভয়ার চার ধর্ষকের ফাঁসি ৩ মার্চ সকাল ৬টায়। এর আগে দুইবার দিনক্ষণ নির্ধারণ করেও আইনি জটিলতার কারণে দণ্ডিত এ চার জনের ফাঁসি দেয়া সম্ভব হয়নি। তবে এ বার নতুন করে তাদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি করল দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্ট।

নতুন পরোয়ানায় বিচারকের নির্দেশ অনুযায়ী আগামী ৩ মার্চ সকাল ৬ টায় তিহাড় জেলে তিন জনের ফাঁসি কার্যকর করতে হবে। এদিকে নতুন মৃত্যু পরোয়ানা জারি করায় খুশি নির্ভয়ার পরিবার।

কিন্তু এই দিনক্ষণও কি চূড়ান্ত? এখনই এমনটা নিশ্চিত করে বলতে পারছে না আইনজীবী মহল। কারণ, পবন গুপ্তের হাতে এখনও দু’টি আইনি বিকল্প রয়েছে। আবার সমস্ত আইনি প্রক্রিয়ার পরেও ১৪ দিন সময় দিতে হয় ফাঁসির জন্য। সেই হিসেবে পবনের আইনি প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে দু’দিনের মধ্যে। পবন এই দু’দিনের মধ্যে আবেদন করবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

২০১২ সালে প্যারামেডিক্যাল ছাত্রীকে চলন্ত বাসে গণধর্ষণ ও নৃশংস অত্যাচারের পর খুনের ঘটনায় চার দণ্ডিত মুকেশ সিংহ, বিনয় শর্মা, অক্ষয় ঠাকুর ও পবন গুপ্তর ফাঁসির আদেশ দেয় নিম্ন আদালত। তার পর থেকেই দীর্ঘ আইনি লড়াই চলছে। পবন গুপ্ত বাদে তিন জনই তাঁদের সমস্ত আইনি বিকল্প শেষ করে ফেলেছেন। সর্বশেষ প্রাণ ভিক্ষার আর্জিও খারিজ করে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

সোমবার আদালতে এই বিষয়টি উল্লেখ করেন তিহাড় জেল কর্তৃপক্ষ। পবন গুপ্তের হাতে এখনও রায় সংশোধনের আর্জি (কিউরেটিভ পিটিশন) এবং রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষার আর্জির বিকল্প থাকলেও তারও কোনও আবেদন কোথাও আটকে নেই বলেও জানান জেল কর্তৃপক্ষের আইনজীবীরা। এর পরেই বিচারক তৃতীয় বারের জন্য মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন।

এর আগেও নির্ভয়া কাণ্ডের দণ্ডিতদের ফাঁসির দিনক্ষণ নির্ধারিত করে দু’বার মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছে পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। প্রথম পরোয়ানায় ফাঁসি কার্যকরের তারিখ ছিল ২২ জানুয়ারি। তার পর দ্বিতীয় পরোয়ানায় সেই তারিখ ছিল ১ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু তার মধ্যেও সব আইনি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ায় গত ৩১ জানুয়ারি পাতিয়ালা হাউস কোর্ট পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ফাঁসি কার্যকরের উপর স্থগিতাদেশ দেয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close