বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ১৭ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা সালাম মিয়া (৩৬) নামে অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে শনিবার বিকালে গ্রেপ্তার করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

আটক সালাম উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের উত্তরভাগ গ্রামের মৃত রইছ মিয়ার ছেলে। কিশোরীটি বর্তমানে মৌলভীবাজার ২৫০ শষ্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ ঘটনায় কিশোরীর মা ছফিনা বেগম বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন। এ ঘটনায় কিশোরীর মায়ের দায়েরকৃত মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রোববার দুপুরে সালামকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান মামলা ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কিশোরীর মা ছফিনা বেগম জানা যায়, শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) তার ছোট মেয়ে ও ছেলে জাফর মিয়াকে বাড়ীতে রেখে বড় মেয়ের স্বামীর বাড়িতে যান। শনিবার ভোর রাতে তার মেয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ঘরের বাহিরে বের হলে এলাকার সালাম মিয়া তাকে মুখ বেঁধে জোরপূর্বক একটি সিএনজি অটোরিকশা করে উত্তরভাগ গ্রামের প্রবাসী কফিল মিয়ার ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়া যায়। পরবর্তীতে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে সালাম মিয়া জোর পূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে।

তিনি আরও জানান, অনেক খোঁজখুজির একপর্যায়ে শনিবার বিকাল ৪ টায় উত্তরভাগ গ্রামের প্রবাসী কফিল মিয়ার ভাড়াটিয়া বাসার দরজার তালা ভেঙ্গে তার মেয়ের হাত ও মুখ কাপড় দিয়ে বাধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তখন ওই ঘরে থাকা সালাম মিয়া পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে কমলগঞ্জ থানায় সোপর্দ করেন।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় কিশোরীর মা বাদী হয়ে শনিবার রাতেই কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন। আটক সালামকে রোববার দুপুরে গ্রেপ্তার দেখিয়ে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close