ভোটকেন্দ্রের গোপন কক্ষে অনিয়ম করলে জেল: রফিকুল ইসলাম

নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেছেন, ঢাকার দুই সিটি ভোট কেন্দ্রের গোপন কক্ষে কেউ অনিয়মের চেষ্টা করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অনিয়মকারীকে সোজা জেলাখানায় ঢোকানো হবে।


গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় উত্তরা হাই স্কুল এন্ড কলেজে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।
রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারগণ অনিয়ম বা ভুল করলে এর দায় নির্বাচন কমিশনের উপর পড়ে। তিনি বলেন, একই সাথে বেশি সাংবাদিক কেন্দ্র ঢুকতে দেবেন না, সাংবাদিকদের বুঝিয়ে বলবেন। বুঝিয়ে না বললে তারা নিউজ করবে কেন্দ্রে প্রবেশে বাধা দিচ্ছে।

ফলাফল তৈরির সময় সকল প্রার্থীর একজন করে লোক উপস্থিত রাখবেন এবং তাদের সাক্ষর রাখবেন। কোনো প্রিজাইডিং অফিসার বা সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার অনিয়ম করলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেবে কমিশন।


তিনি বলেন, ফল তৈরির সময় সকল প্রার্থীর একজন করে উপস্থিত রাখবেন এবং তাদের স্বাক্ষর রাখবেন। কোন প্রিজাইডিং অফিসার বা সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার অনিয়ম করলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেবে।


কমিশন ইভিএম প্রসঙ্গে রফিকুল ইসলাম বলেন, সবকিছু সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হবে না। যদি জিনিসটা ভালো হয় আমরা ব্যবহার করব। যিনি সমস্যার কথা বলছেন হয়তো তিনিও ব্যবহার করবেন। কিন্তু যদি কোন সময় সমস্যা হয় ব্যবহার করব না। সেটি কোন সময় তা আইডেন্টিফাই হলে তখন সেটি দেখব। এখন পর্যন্ত কোন ত্রæটি দেখা যায়নি। এর মাধ্যমে নির্বাচনী প্রক্রিয়া সুন্দর আইনানুগ হবে। আমরা নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করব না, কেউ করলে তাদের প্রতি নজরদারি আছে। আমরা তাদের সর্বোচ্চ কঠোরতার সাথে আইনের আওতায় আনব।


এসময় যুগ্ম সচিব মো. আবুল কাসেম, নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালক মো. নুরুজ্জামান তালুকদার, আঞ্চলিক নির্বাচক কর্মকর্তা জি এম সাহতাব উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open