৮দফা দাবি ছাত্রফ্রন্টের

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট এর ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট নগর শাখার উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকেলে নগরীতে মিছিল-সমাবেশ করা হয়েছে।

সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে সিটি পয়েন্টে গিয়ে সমাবেশ করবে। নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদিয়া নোশিন তাসনিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নগর শাখার সভাপতি সঞ্জয় কান্ত দাস। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি রেজাউর রহমান রানা, পাঠাগার সম্পাদক আল-আমিন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৮৪ সালের ২১ জানুয়ারি তৎকালীন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের অগ্নিগর্ভ থেকে জন্ম নেয় লড়াই সংগ্রামের পথিকৃৎ সংগঠন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। শাসকদের শিক্ষা সংকোচনের এমন কোন বিষয় নেই যা ছাত্র ফ্রন্ট উন্মোচন করে নি। শাসকদের ‘টাকা যার শিক্ষা তার’ এই নীতির বিরুদ্ধে শুরু থেকেই আন্দোলন করে আসছে। আজ বাংলাদেশের ছাত্র রাজনীতির দুটা ধারা তৈরি হয়েছে, একটি নীতি আদর্শহীন সন্ত্রাস নির্ভর ছাত্র রাজনীতি, অন্যটি নীতি আদর্শভিত্তিক ছাত্র অধিকারের পক্ষের ছাত্র রাজনীতি। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নীতি আদর্শভিত্তিক রাজনীতির বলিষ্ঠতম সংগঠন। এই ধারাবাহিকতায় আমরা সিলেটেও শিক্ষার সংকট নিরসনে আন্দোলন পরিচালনা করছি। পিইসি পরীক্ষা বাতিল, সিলেটের ঐতিহ্যবাহী (রসময়, এইডেড, রাজা জি.সি, কিশোরী মোহন) স্কুলগুলোকে সরকারিকরণ, এম.সি কলেজে বাণিজ্য ও মদনমোহন কলেজে বিজ্ঞান অনুষদ চালু, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রতিটি ওয়ার্ড ও চা বাগানে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চালু, সকল প্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংসদ নির্বাচন প্রদানসহ ৮দফা দাবিতে আন্দোলন গড়ে তুলছে। একটি সঠিক আদর্শকে ভিত্তি করে একদিকে যেমন শিক্ষা সংকট নিরসনের লক্ষে আন্দোলন করছে ছাত্র ফ্রন্ট কর্মীরা, অন্যদিকে প্রবল অবক্ষয়ের মধ্যে অতীতের সকল রড় মানুষের জীবন সংগ্রাম থেকে শিক্ষা নিয়ে উন্নত রুচি, সংস্কৃতি নিয়ে যাচ্ছে ছাত্র সমাজের সামনে। ফলে ছাত্র ফ্রন্টের কর্মীরা প্রবল সন্ত্রাস নৈরাজ্যের মধ্যে একটা আশার আলো সৃষ্ঠি করছে। সবাইকে ছাত্র রাজনীতির আদর্শবাদী লড়াকু ধারাকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close