নগরীতে মোটর সাইকেল ঠেকাতে ফুটপাতে লোহার খুঁটি

নির্দেশনা অমান্য করে সিলেট নগরীর ফুটপাতে প্রায়ই মোটর সাইকেল নিয়ে উঠে পড়েন চালকরা। এতে দুর্ভোগে পড়েন পথচারীরা। মোটর সাইকেল চালকদের এই প্রবণতা ঠেকাতে এবার নগরীর ফুটপাতে লোহার খুঁটি বসিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে পরামর্শ করে এমনটি করেছে সিসিক।

সম্প্রতি নগরীর ভিআইপি সড়কখ্যাত চৌহাট্টা থেকে রিকাবীবাজার সড়কের ফুটপাতে লাগানো হয়েছে স্টিলের দণ্ড। ফলে যানবাহনের যন্ত্রণা থেকে রক্ষা পেয়েছি ফুটপাতটি। স্বস্তি পাচ্ছেন পথচারীরা।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান জানান, ফুটপাত দিয়ে মোটরসাইকেল চালানো বন্ধ করতে এসএমপি পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সঙ্গে আলাপ করে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রথম অবস্থায় আলিয়া মাদরাসা মাঠ সংলগ্ন ভিআইপি সড়কের ফুটপাতে তিনটি এবং চৌহাট্টা এলাকার সড়কের ফুটপাতে আরো চার লাইনের প্রতিবন্ধক খাম্বা তৈরি করা হয়েছে। এসবের ভেতর দিয়ে লোকজন হেঁটে যেতে পারবেন, তবে মোটরসাইকেল নিয়ে যাওয়া যাবে না। এভাবে নগরের বিভিন্ন স্থানে ফুটপাতে প্রতিবন্ধক খাম্বা তৈরি করা হবে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ( ট্রাফিক) নিকোলিন চাকমা জানান, ফুটপাত দিয়ে মোটরসাইকেল কিংবা কোনো ধরনের যানবাহন চালানো শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ২০১৮ সালের মোটরযান আইনের ৯২(১) ধারায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা যায়। এখন পর্যন্ত এ অপরাধে অন্তত ৩০টি মামলা হয়েছে। এরপরও যাতে কেউ ফুটপাত দিয়ে গাড়ি চালাতে না পারেন, সেজন্য প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা হয়েছে।

নিকোলিন চাকমা বলেন, পথচারীদের চলাচলের জন্য ফুটপাত। কিন্তু তাতেও মানুষ যদি চলাচল না করতে পারে, তবে ফুটপাতের প্রয়োজন ছিল না। এই আইন মানতে প্রতিনিয়ত প্রচারণাও চালাচ্ছে ট্রাফিক বিভাগ। আর এ ধরনের প্রতিবন্ধক কেবল এই শহরেই নয়, নগরের অন্য শহরের সড়কের ফুটপাতেও লাগানো হবে। — প্রেস বিজ্ঞপ্তি ।

Sharing is caring!

Loading...
Open