‘টিভির সাউন্ড না কমানোয় হাত-পা বেঁধে হত্যা’ সৎ মায়ের স্বীকারোক্তি

টাঙ্গাইলের আমিন বাজার এলাকায় শ্বাসরোধ করে সাইফ উদ্দিন নামে ৮ বছরের শিশুকে হত্যা মামলায় ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দিয়েছেন সৎ মা। জবানবন্দী শেষে সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক মুনিরা সুলতানা তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম জানান, গত শনিবার (১৭ জানুয়ারি) টাঙ্গাইল পৌরসভার আমিন বাজার এলাকায় ৮ বছরের সাইফ উদ্দিন নামের এক শিশু হত্যার ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে নিহত লাশ উদ্ধার করে।

এসময় সাইফের সৎ মা পুলিশকে জানায় তার বাসায় ডাকাত এসে তার হাত পা বেঁধে সাইফকে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। পুলিশ তার কথা বিশ্বাস না করে তাকে ঐ রাতেই আটক করে হেফাজতে নেয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায় তিনি পুলিশকে জানান, ঐ রাতে সাইফ এবং সে দুজনেই বাসায় ছিলো। সাইফ জোরে সাউন্ড দিয়ে টিভি দেখছিলো। তিনি না করার পরেও সাইফ তার কথা শোনেনি। পরে রাগ করে সাইফের হাত পা এবং মুখ বেধে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন তিনি।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে পুলিশ তাকে আদালতে প্রেরণ করলে সিনিয়র চীফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক মুনিরা সুলতানের নিকট ১৬৪ ধারায় জবান বন্ধী দেয় ঘাতক সৎ মা। জবানন্দ্বী শেষে আদালতের বিচারক তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।

গত শনিবার দুপুরে স্ত্রী ও সন্তান রেখে প্রতিদিনের মতো কাজে যান সালাউদ্দিন। কাজ থেকে সন্ধ্যার পর সালাহউদ্দিন বাসায় গিয়ে দেখতে পান তার ছেলে সাইফের নিথর দেহ মেঝেতে পড়ে আছে। বাসার আসবাবপত্র এলোমেলোভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে এবং তার স্ত্রী অচেতন অবস্থায় পড়ে আছেন। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

Sharing is caring!

Loading...
Open