সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ৮ সদস্য পুরস্কৃত

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) ৮ সদস্য পুরস্কৃত করা হয়েছে। কর্মক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় তাদেরকে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।

গতকাল সোমবার মাসিক অপরাধ সভায় পুলিশের এসব সদস্যদের পুরস্কৃত করেন এসএমপি কমিশনার গোলাম কিবরিয়া। এসএমপির কার্যালয়ে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসএমপি জানায়, গেল ডিসেম্বর মাসে মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও মামলা নিষ্পত্তি, বিচারের জন্য অধিক সংখ্যক মামলা প্রস্তুত, মামলা নিষ্পত্তি, অধিক পরিমাণ গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল, সর্বোচ্চ প্রসিকিউশন দাখিল ও জরিমানা আদায়, অধিক সংখ্যক পরোয়ানা তামিল প্রভৃতি কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় ৮ সদস্যকে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের এসআই আবু রায়হান নুর, এসআই সৌমেন দাস, আদালতে দায়িত্বপ্রাপ্ত এসআই মোহাম্মদ জানু মিয়া, মোগলাবাজার থানার এসআই রাজীব কুমার রায়, ট্রাফিকের সার্জেন্ট ফাহাদ চৌধুরী, কোতোয়ালী থানার এএসআই মো. আব্দুল হান্নান, দক্ষিণ সুরমা থানার এএসআই আপন মিয়া এবং আদালতে দায়িত্বপ্রাপ্ত এএসআই মো. ওসমান।

অপরাধ সভায় এসএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) পরিতোষ ঘোষ, অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম ও অপরারেশন) শফিকুল ইসলাম, উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সাল মাহমুদ, উপ-কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) তোফায়েল আহমদ, উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএম, উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) সোহেল রেজা পিপিএম, উপ-কমিশনার (ডিবি এন্ড প্রসিকিউশন) সঞ্জয় সরকার, অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া ও কমিউনিটি সার্ভিস) জেদান আল মুসা, র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সামিওল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও এসএমপির সকল অতিরিক্ত উপ-কমিশনার, সহকারী কমিশনার, সকল থানায় ওসি, হাইওয়ে পুলিশের প্রতিনিধি, ট্যুরিস্ট পুলিশের প্রতিনিধি, ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ইমিগ্রেশন পুলিশের প্রতিনিধি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি এবং সিআইডি এর প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সকল থানার ওসিগণ তাদের থানা এলকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির চিত্র তুলে ধরেন। এসএমপি কমিশনার সর্বোচ্চ পুলিশি সেবা নিশ্চিত করতে এবং কাউকে হয়রানি না করতে ওসিদের নির্দেশ দেন। এছাড়া তদন্তাধীন মামলাসমূহ দ্রুত নিষ্পত্তি করতেও নির্দেশ দেন তিনি। নগরীতে চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতি প্রতিরোধ করতে টহল বৃদ্ধি, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত রাখা এবং যানজট নিরসনে ট্রাফিকের সর্বদা তৎপরতায় জোর দেন কমিশনার। জাতীয় সেবা নম্বর ৯৯৯ এ সেবা জোরদার এবং ভাড়াটিয়া তথ্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখতেও নির্দেশনা প্রদান করেন গোলাম কিবরিয়া।

এদিকে, গতকাল এসএমপির মাসিক কল্যাণ সভাও অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ লাইন্সে কল্যাণ সভায় পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া পুলিশ সপ্তাহ-২০২০ এ এসএমপির ১০ জন কর্মকর্তা ও সদস্য আইজিপি পদক পাওয়ায় তাদেরকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। পুলিশের জন্য চিকিৎসাসেবার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালে নতুন ৮ জন চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে তিনি সভায় জানান।

পুলিশ কমিশনার ‘মুজিববর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার’ এই মূলমন্ত্রে জনসেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে প্রত্যেক সদস্যকে আহবান জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open