হাত-পা বেঁধে কিশোরীকে ‘ধর্ষণ’ আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে

জামালপুরের সদর উপজেলায় এক কিশোরীকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগের এক নেতার বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার ও বৃহস্পতিবার দু দফায় তাকে ধর্ষণ করা হয়।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ লোকজন সদর উপজেলার বাদেচান্দি এলাকায় জামালপুর-ময়মনসিংহ সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে এক ঘণ্টা ধরে বিক্ষোভ করেন।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম চান মিয়া। তিনি সদর থানার লক্ষ্মীরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহপ্রচার সম্পাদক। কয়েক বছর আগে শরিফপুর ইউনিয়নের বাদেচান্দি এলাকায় বাড়ি করে সেখানে বসবাস করছেন।

কিশোরীর বাবার অভিযোগ, গতকাল বুধবার বাড়ির কাজের জন্য চাঁন মিয়া তার মেয়েকে নিয়ে যান। তারপর তার হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার সকালে সে সেখান থেকে পালিয়ে আসে।

ভুক্তভোগী কিশোরী জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে চান মিয়া। সকালে আবার ধর্ষণ করে আড়াই হাজার টাকা দিয়ে বলে, ‘‘যা চাবি তাই দিমু। এই কতা কাউরে কইসনে।’’ আমি চিৎকার করলে চড়-থাপ্পড় দিয়ে আমার মুখ চেপে ধরে। আমি এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।’

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সালেমুজ্জামান জানান, চান মিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ পেয়েছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। তবে এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close