সিলেটে সাদা পাথর ট্যুরিস্ট বাস উদ্বোধন প্রতিদিন চলবে ২৬টি বাস

পর্যটন নগরী সিলেটে পর্যটকদের সুবিধার্থে সাদা পাথর এসি নন এসি ট্যুরিস্ট বাস চালু করা হয়েছে। আজ থেকে সিলেট-ভোলাগঞ্জ (সাদাপাথর) সড়কে প্রতিদিন ২৬টি বাস চলাচল করবে। এর মধ্যে ৫টি এসি ও ২১টি ননএসি বাস রয়েছে। প্রতিদিন সিলেটের মজুমদারী থেকে ভোলাগঞ্জ -সাদা পাথর যাত্রী আনা নেয়া করবে।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) দুপুরে সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ-ভোলাগঞ্জ সড়কে যাত্রীসেবার জন্য এই বাসের উদ্বোধন করা হয়। সিলেট নগরীর মজুমদারি এলাকায় জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে ফিতা কেটে এ বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেটের পুলিশ সুপার মো.ফরিদ উদ্দিন।

সিলেট-সালুটিকর-কোম্পানীগঞ্জ-ভোলাগঞ্জ-গোয়াইনঘাট-হাদারপাড়-রাধানগর বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি রিমাদ আহমদ রুবেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মালিক সমিতির সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। স্বাগত বক্তব্য দেন সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ও সাদা পাথর পরিবহনের সভাপতি এটিএম শোয়েব।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন সিলেটের পর্যটন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। বিছানাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রের উন্নয়নে চার কোটি টাকার প্রকল্প নেওয়া হয়েছে।রাস্তার কাজ শেষ হওয়ায় দিন দিন ভোলাগঞ্জ সাদাপাথর এলাকায় পর্যটকের সংখ্যাও বাড়ছে। ভবিষ্যতে ভোলাগঞ্জে স্থলবন্দরও হবে।সবমিলিয়ে সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কে পরিবহন ব্যবসার ভালো সুযোগ রয়েছে।জেলা প্রশাসক বলেন পরিবহন মালিকদের শুধু ব্যবসার কথা চিন্তা করলে চলবে না। সবার আগে যাত্রীসেবার মান নিশ্চিত করতে হবে। সেবা বাড়লে যাত্রীও বাড়বে। এতে পরিবহন মালিকরা ব্যবসায়ীকভাবেও লাভবান হবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজ আহমদ সেলিম, সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন সাহা সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, সিলেট চেম্বারের পরিচালক এহতেশামুল হক চৌধুরী আবদুর রহমান জামিল পিন্টু চক্রবর্তী সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল কবীর পলাশ সমাজসেবী বজলুর রহমান বাবুল আকরার আহমদ পিয়ার আহমদ শাহবাজ মিয়া পরিবহন নেতা দেলোয়ার হোসেন দিলু মনোয়ার হোসেন খলিল আহমদ প্রমুখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open