টাঙ্গুয়ার হাওরের টুরিস্ট গাইডকে পেটালেন ম্যাজিস্ট্রেট’র নৌকার মাঝি

তাহিরপুর প্রতিনিধি :: টাঙ্গুয়া হাওরের এক ইকো টুরিস্ট গাইডকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে। হাওরের দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট এর নৌকার মাঝি শফিক মিয়া এ নির্যাতন করেন বলে জানা গেছে।

টুরিস্ট গাইডের নাম বিল্লাল মিয়া (৩৯)। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে তাহিরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিল্লাল মিয়া উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের গোলাবাড়ী গ্রামের মৃত মাহমুদ আলীর ছেলে। এ ব্যাপারে বুধবার সন্ধ্যায় তাহিরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে তাহিরপুর থানার এএস আই আবু মোছা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ইকো টুরিষ্ট গাইড বিল্লাল মিয়া তার বাড়ির খাজনা পরিশোধ করার জন্য শ্রীপুর ডিহিবাটি অফিসে আসার পথে টাঙ্গুয়া হাওরের দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট এর নৌকার মাঝি ও কামালপুর গ্রামের আজিজ মিয়ার ছেলে শফিক মিয়া তার বসত বাড়ির দক্ষিনের রাস্তায় পথরোধ করে বিল্লাল মিয়াকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। পরে পথচারীরা বিল্লাল মিয়াকে উদ্ধার করে তাহিরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বিল্লাল মিয়া জানান, টাঙ্গুয়া হাওরে শফিক মিয়া ম্যাজিস্ট্রেট এর নামে জেলে ও অতিথি পাখি শিকারীদের কাছ থেকে চাঁদা নেন। এসবে বাধা দেওয়াই সে ক্ষিপ্ত হয়ে লোহার রড দিয়ে তার মাথায় ও কানে আঘাত করে মারাত্মক আহত করেছে। তিনি আরো জানান, তার সঙ্গে থাকা ৯৬ হাজার টাকা শফিক ছিনিয়ে নিয়ে গেছে।

শফিক মিয়া বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বিল্লাল মিয়ার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে। টাঙ্গুয়ার হাওর থেকে ম্যাজিস্ট্রেট এর নামে জেলে বা পাখি শিকারীদের কাছ থেকে কোন টাকা পয়সা নিচ্ছেনা বলে মোবাইল ফোন রেখে দেন তিনি। তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জি বলেন, শফিক মিয়া মাঝে মধ্যে টাঙ্গুয়ার হাওরে নৌকা চালায়। বিষয়টি নিয়ে আমার কাছে অভিযোগকারী এসেছিলেন। আমি বলেছি থানায় অভিযোগ দিতে পুলিশ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবে

তাহিরপুর থানার এএসই আবু মোছা জানান, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযুক্তর বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close