তারকারা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার নিলেন

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের ‘হল অব ফেম’-এ বসল তারার মেলা। জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে দেওয়া হলো ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৭-১৮’। পূর্বঘোষিত ২৮টি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে রোববার বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে পদক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এতে ২০১৭ সালের চলচ্চিত্র হিসেবে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ও ২০১৮ সালের সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার দেওয়া হয় ‘পুত্র’ ছবিকে ২০১৮ সালে দর্শকদের মন জয় করা ‘পুত্র’ বাজিমাত করেছে পুরস্কারের সংখ্যায়। সর্বোচ্চ ১১ শাখায় পুরস্কার পায় ছবিটি। আর ২০১৭ সালে সর্বাধিক ৭ শাখায় পুরস্কার পায় ‘গহীন বালুচর’।

২০১৭ সালের জন্য আজীবন সম্মাননা পান বর্ষীয়ান অভিনয়শিল্পী এটিএম শামসুজ্জামান ও সালমা বেগম সুজাতা এবং ২০১৮ সালের জন্য অভিনেতা প্রবীর মিত্র ও আলমগীর। শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পান যৌথভাবে শাকিব খান- সত্তা [২০১৭] ও আরিফিন শুভ- ঢাকা অ্যাটাক [২০১৭]। ফেরদৌস [পুত্র] ও সাইমন [জান্নাত] যৌথভাবে ২০১৮ সালের শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার গ্রহণ করেন।

আলোঝলমল আয়োজনে ২০১৭ সালের শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার গ্রহণ করেন নুসরাত ইমরোজ তিশা [হালদা] এবং ২০১৮ সালের দেবী ছবির জন্য জয়া আহসান সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার গ্রহণ করেন।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শাকিব খান চতুর্থবারের মতো সেরা নায়ক নির্বাচিত হন। প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে তিনিও এদিন পদক গ্রহণ করেন। এবার আসরে পঞ্চমবারের মতো চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ করেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস।

অন্যদিকে আরিফিন শুভ ও সাইমন সাদিক প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ করলেন। জয়া আহসান চতুর্থবারের মতো গ্রহণ করলেন এ পুরস্কার। তিশা ‘হালদা’র মাধ্যমে দ্বিতীয়বার পুরস্কার পেলেন। ২০১৮ সালে শ্রেষ্ঠ গায়িকার পুরস্কার পেলেন বরেণ্য কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন। একই বছরে সেরা সুরকারের পুরস্কার পেতে পেলেন আরেক বরেণ্য কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা।

এবার বিতর্কের মুখে ২০১৭ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের ভারতীয় চিত্র সম্পাদক মো. কালাম। ‘শ্রেষ্ঠ চিত্র সম্পাদক’ ক্যাটাগরিতে নতুন কাউকে পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open