কোম্পানীগঞ্জ সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে মাঠে ওসি সজল কানু

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাস চলাচল বন্ধের দাবিতে ধর্মঘটে জনসাধারণে দুর্ভোগ কমাতে ও শৃঙ্খলা ফেরাতে মাঠে নেমেছে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সজল কুমার কানু।

মঙ্গলবার সকাল থেকে এ সড়ককে সিএনজি চলাচল বন্ধ রেখেছে সিএনজি শ্রমিক ও মালিকেরা এবং তারা এই সড়কে চলাচলকারী যাত্রীবাহী অটোরিকশা (টমটম), মটরসাইকেল ও মাইক্রোবাস চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে এলাকায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার সংবাদ পেয়ে ওসি সজল কানু নিজে এই সড়কে যাত্রীবাহী গাড়ী চলাচল স্বাভাবিক করে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনেছে।

তিনি মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় থানা বাজার, টুকের বাজার ও ভোলাগঞ্জ বাজারে সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ও মালকদের সাথে আলোচনা করে কোম্পানীগঞ্জ সড়কে সকল ধরনের যাত্রীবাহী গাড়ী চলাচল স্বাভাবিক করতে অনুরোধ জানান।

সোমবার সন্ধ্যায় বিআরটিসি বাস বন্ধ সহ ৪টি বাদীতে ধর্মঘট ডাক দিয়েছে সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক আম্বরখানা-সালুটিকর শাখা সমিতি। এর আগে এ সড়কে অনির্দিষ্টকাল বাস ধর্মঘটের ডাক দেয় সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ-গোয়াইনঘাট-হাদারপাড় বাস মিনিবাস সমিতি। সোমবার সকাল থেকে তাদের ধর্মঘট চলছে।

সিএনজি অটোরিকশার ধর্মঘটের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিএনজিচালিত অটোরিকশা টুকের বাজার শাখার সভাপতি মনফর মিয়া বলেন, ‘আমরা ৪টি দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছি। আমাদের দাবিগুলো হলো- সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাস চলাচল বন্ধ করা, সম্প্রতি জারিকৃত নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংশোধন, অনটেস্ট থাকা গাড়িগুলোর রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ প্রদান, অটোরিকশা চালকদের লাইসেন্স করতে ৮ম শ্রেণি পাস থাকা বাধ্যতামূলক এ বিষয়টি বাতিল করা।

এব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সজল কুমার কানু বলেন, সিএনজি ও বাস শ্রমিকেরা শান্তিপূর্ণভাবে ধর্মঘট পালনের জন্য অনুরোধ করেছি এবং তারা অন্যান্য যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচলে বাধা সৃষ্টি না করতে নির্দেশ দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে জনসাধারণকে বিপদে ফেলে কাউকে তাদের নিজস্ব স্বার্থ হাসিলের সুযোগ দেওয়া হবে না। এই সড়ক সিএনজি ব্যতীত সকল ধরণের যাত্রীবাহী গাড়ী চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানান তিনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open