আজ শেষ হচ্ছে রবীন্দ্র উৎসব

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সিলেটবাসীর আমন্ত্রণে ‘শ্রীভূমি’ সিলেটে এসেছিলেন ১৯১৯ সালের নভেম্বরে। ২০১৯ সালে এর শতবর্ষপূর্তি হচ্ছে। সেই স্মৃতিকে স্মরণীয় করে রাখতে তাই সিলেটে ব্যাপক আয়োজনে চলছে ‘সিলেটে রবীন্দ্রনাথ: শতবর্ষ স্মরণোৎসব’।

সিলেটে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ আয়োজনের এই উৎসবের মূলপর্বের নানান অনুষ্ঠান বুধবার সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।বিকাল ৪টায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠানমালা। এরপর সিলেটের স্থানীয় শিল্পিদের পরিবেশনায় আগমনী নৃত্য, আবৃত্তি ও গানের আয়োজন।

সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয় আলোচনা সভা। সভায় ‘সিলেটে রবীন্দ্রনাথ: শতবর্ষ স্মরণোৎসব’ উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আলোচনায় অংশ নেন লেখক ও সাবেক সচিব মোফজ্জল করিম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রিয় সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ।

অনুষ্ঠানের সমাপণী হবে আজ। সন্ধ্যা ৭টায় ভিডিও কনাফারেন্সের মাধ্যমে উৎসবের সমাপণী বক্তব্য রাখবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এম এ মান্নান এমপি ও সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি।

এছাড়া সমাপণী দিনের অনুষ্ঠানে থাকবে বাংলাদেশের আসাদুজ্জামান নুর,রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, লাইসা আহমেদ লিসা, ড. অনুপম কুমার পাল, ড. অসীম দত্ত এবং ভারতের মেধা বন্দ্যোপাধ্যায়,পদ্মশ্রী পূর্ণদাস বাউল ও অগ্নিভ বন্দ্যোপাধ্যায়সহ খ্যাতিমান শিল্পিদের আবৃত্তি ও গান পরিবেশনা।

বুধবার বিকাল থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলা অনুষ্ঠান উপভোগ করেন,সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার, জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি ড. এ কে মুবিন, সাবেক সংসদ সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী,সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো.মোস্তাফিজুর রহমান, জাতীয় অধ্যাপক সাহেলা খাতুন, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান,সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার গোলাম কিবরিয়া,পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম,জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি জগলুল পাশা, উৎসব উদযাপন পর্ষদের যুগ্ম আহবায়ক আরশ আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ,

নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য্য আতফুল হাই শিবলি, বীর মুক্তিযোদ্ধা নিজাম উদ্দিন লস্কর ময়না, সদর উদ্দিন আহমদ চৌধুরী, ওয়ার্কার্স পার্টির সিলেট জেলার সভাপতি সিকন্দর আলী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম,সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবীর, শিপা হাফিজ, সেলিনা মোমেন, শ্যামা হক, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফারজানা মিসবাহ,সিলেট স্টেশন ক্লাবের সভাপতি ই ইউ শহীদুল ইসলাম শাহীন, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আসলাম উদ্দিন, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার বিভূতি ভূষণ ব্যানার্জী, সুজ্ঞান চাকমা, র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান প্রমুখ।বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open