ওসমানীনগরে মহিলা আ.লীগের সম্মেলনে হট্টগোল

ওসমানীনগর প্রতিনিধি: সিলেটের ওসমানীনগরে মহিলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার তাজপুর কদমতলায় একটি সেন্টারে সিলেট জেলা মহিলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালমা বাছিত এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলুর সঞ্চালনায় অনুষ্টিত হয়।

সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী ছিলেন ৪ জন।

এর মধ্যে একজন প্রার্থীর (রিতা চক্রবর্তীর) নাম তালিকায় না থাকায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন তার অনুসারিরা। তাদের সাথে টেক্কা দিয়ে অন্য প্রার্থীর সমর্থকরাও কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। বিশৃংখলা ছড়িয়ে পড়ে সম্মেলন স্থলে।

পরবর্তীতে জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। রাত অনুমানিক ৮টার দিকে সিলেট থেকে কমিটি ঘোষণা হবে এমন প্রতিশুতি দিয়ে নেতৃবৃন্দ সম্মেলন স্থল ত্যাগ করেন।

মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী রিতা চক্রবর্তী বলেন, সভাপতি প্রার্থীদের তালিকায় আমার নাম না থাকায় সম্মেলনে সমর্থকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।পরবর্তীতে কমিটি ঘোষণা স্থগিত করে সম্মেলন সমাপ্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক চয়ন পাল বলেন আমাদের চাহিদা ছিলো আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ সকলের সমন্বয়ে মহিলা আওয়ামীলীগের একটি সুন্দর কমিটি উপহার দেয়া হোক। কিন্তু বর্তমান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের কছে ৪ জন প্রার্থীর মধ্যে একজন প্রার্থীর নাম বাদ দিয়ে তালিকা পাঠান।

এ নিয়ে কথাকাটি হওয়ায় কমিটি ঘোষণা ছাড়াই সম্মেলনের সমাপ্তি ঘটে।উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু বলেন উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে সামান্য ভুল বুঝাবুঝি হলে পরবর্তীতে তা সমাধান হয়েছে।

সভাপতির ব্যাপারে সকলে একমত না হওয়ায় জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সিলেট থেকে কমিটি ঘোষণা করবেন।

এ ব্যাপারে সিলেট জেলা মহিলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সালমা বাছিতের সাথে কথা বলতে মুঠোফেনে যোগাযোগ করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।

Sharing is caring!

Loading...
Open