নগরীতে আনোয়ার জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু

সুরমা টাইমস ডেস্ক :: সিলেটে এক প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের ভুল অস্ত্রোপচারে মহিলা রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় চিকিৎসকের শাস্তি নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিলে (বিএমডিসি) আবেদন করেছেন নিহতের স্বামী মো. আবু সাঈদ। নিহত সুফিয়া বেগমের সাড়ে ৮ বছর বয়সী এক কন্যা সন্তান রয়েছে। বিএমডিসি’র চিঠি পেয়ে হাসপাতালের পরিচালক ও অভিযুক্ত চিকিৎসক পৃথকভাবে জবাব দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

লিখিত অভিযোগ মতে, পুলিশের এএসআই মো. আবু সাঈদ এর স্ত্রী সুফিয়া বেগম গত ১০ই জুন শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ কিশোয়ারা পারভীনের শরণাপন্ন হন। পরে ওই চিকিৎসকের মালিকানাধীন দরগা গেইটস্থ আনোয়ার জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ল্যাপারস্কপিক সার্জারী সেন্টারে ভর্তি করা হলে ২২ ও ২৫শে জুন তার শরীরে দু’দফায় অস্ত্রোপচার করা হয়। একপর্যায়ে ২৬শে জুন অসুস্থ সুফিয়া বেগমের শারীরিক অবস্থার বেশ অবনতি ঘটে। তখন ডাঃ কিশোয়ারা পারভীন মুমুর্ষ অবস্থায় রোগীকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তিরত সুফিয়া বেগম মৃত্যুবরণ করেন।

সূত্র মতে, অভিযোগ পাওয়ার পর বিএমডিসি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমলে নিয়ে গত ২৫শে সেপ্টেম্বর ডাঃ কিশোয়ারা পারভীনের কাছে লিখিতপত্র (স্মারক নং বিএমএন্ডডিসি/১২-ই-২০১৯) প্রেরণ করে। এতে পত্রপ্রাপ্তির ১৫ দিনের মধ্যে বিএমডিসি’র ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রারকে এ বিষয়ে অবহিত এবং তাঁর বিএমডিসি’র রেজিস্ট্রেশন নাম্বার উল্লেখ করার কথা রয়েছে।

মর্মান্তিক এ ঘটনার প্রায় ৩ মাস পর নিহতের স্বামী মো. আবু সাঈদ প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ কিশোয়ারা পারভীনের শাস্তি চেয়ে বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিলে (বিএমডিসি) অভিযোগ করেন।

অভিযোগকারি মো. আবু সাঈদ বলেন, স্ত্রীকে হারিয়ে আমি অনেকটা বাকরুদ্ধ। তিনি বলেন, আমার বিশ্বাস বিএমডিসি অভিযুক্ত চিকিৎসককে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করবে।

এ বিষয়ে ডাঃ কিশোয়ারা পারভীন বলেন, অস্ত্রোপচারে কোন ভুল হয়নি। বিএমডিসি’র চিঠি পেয়ে গত বৃহস্পতিবার লিখিত জবাব পাঠিয়েছি।

আনোয়ার জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক শেখ সেলিম আহমদ বলেন, মহিলার মৃত্যু ছিল অনাকাঙ্ক্ষিত। তৎসময় এ নিয়ে উত্তেজনা হলেও অভিজ্ঞদের সাথে বসে বিষয়টি সমাধান হয়েছে। কিন্তু আমাদের হয়রানি করার জন্য আবু সাঈদ এতোদিন পর বিএমডিসি’তে অভিযোগ দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা চিঠির জবাব দিয়েছি।

Sharing is caring!

Loading...
Open