অকাল প্রয়াত শিল্পী ও নির্মাতা হুমায়ূন সাধুর স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

অকাল প্রয়াত শিল্পী ও নির্মাতা হুমায়ূন সাধুর স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২ নভেম্বর) রাজধানীর পরীবাগের সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্রে সদ্যপ্রয়াত নির্মাতা, অভিনেতা, কবি ও লেখক হুমায়ূন সাধু স্মরণে ‘আমাদের একজন সাধু ছিল’ শীর্ষক স্মরণানুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘সহমত বাংলাদেশ’।

এ আয়োজনে কথায়-স্মৃতিচারণে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা হয় হুমায়ূন সাধুকে। তাকে নিয়ে অনুষ্ঠানে কথা বলেন অভিনেতা বাপ্পি চৌধুরী, কচি খন্দকার, পরিচালক রেদোয়ান রনি, সঞ্জয় সমদ্দারসহ অভিনেতা, চিত্রপরিচালক, লেখক এবং বিশিষ্ট শিল্পীজনেরা।

বক্তারা বলেন, হুমায়ূন সাধু একজন স্টোরি টেলার ছিলেন। তিনি গল্প খুঁজে যেতেন। তারমধ্যে সবসময় একটা আকাঙ্ক্ষা থাকতো যে, আমি একটা সিনেমা বানাবো। আর সবচেয়ে বড় কথা, তিনি সবার নতুন চিন্তাগুলোকে প্রাধান্য দিতেন।

তারা বলেন, মানুষ হিসেবে একজন বড় মনের এবং ভালো মানুষ ছিলেন হুমায়ূন সাধু। তিনি হারিয়ে গেলেও আমরা সাধুকে লালন করবো আমাদের মধ্যে।

এসময় বক্তারা হুমায়ূন সাধুর লেখাগুলো প্রকাশে ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে হুমায়ূন সাধুকে নিয়ে প্রদর্শিত হয় একটি প্রামাণ্যচিত্র।

চট্টগ্রামে জন্ম নেওয়া হুমায়ূন সাধুর শোবিজে পথ চলা শুরু মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর হাত ধরে। অভিনয় দিয়ে দর্শকদের কাছে পরিচিতি পেয়েছেন, নাটক নির্মাণ করেও প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ সিনেমা দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু হয় তার।

সাধু অভিনীত ‘ঊন মানুষ’ এবং পরিচালিত ‘চিকন পিনের চার্জার’ নাটক ব্যাপক আলোচিত হয়। চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশ পায় তার প্রথম বই ‘ননাই’।

একটি সিনেমা নির্মাণের কাজও হাতে নিয়েছিলেন তিনি। অভিনয়, নির্মাণ ও লেখালেখি-তিনটিই সমানতালে চালিয়ে যাচ্ছিলেন ‘ঊন মানুষ’ খ্যাত এ তারকা।

উল্লেখ্য, হুমায়ূন সাধু গত ২৫ অক্টোবর রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close