সাংবাদিক পাভেলকে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে উত্তাল নগরী

সিলেট ফটোসাংবাদিক শ্রমজীবী সমবায় সমিতির সভাপতি সিলেটের সিনিয়র সাংবাদিক নাজমুল কবীর পাভেলকে পেশাগত দায়িত্বপালনকালে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, ডে-লেবার শাহাব উদ্দিন শিহাব ও হকার্স দল মহানগর শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম কর্তৃক লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠে সিলেট নগরী।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট ফটোসাংবাদিক শ্রমজীবী সমবায় সমিতির উদ্যোগে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন বক্তারা। বিভিন্ন পেশাজীবীর মানুষ এই মানববন্ধনে অংশ নেন। তারা সিসিক মেয়র আরিফুল হকের নানা অপকর্ম তাদের বক্তব্যে তুলে ধরেন।

দৈনিক সিলেটের দিনকালের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও সিলেট ফটো সাংবাদিক সমবায় সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তারা বলেন, ‘আরিফুল হক চৌধুরীর অতীত ইতিহাসই ছিল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ভরা। সেই পুরনো চেহারায় আবার ফিরে এসেছেন মেয়র আরিফ। তাছাড়া আরিফ একজন মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী শক্তির নেতা। তার এই ঔদ্ধত্য আচরণে সাংবাদিক পাভেলই লাঞ্ছিত হননি, গোটা সিলেটের সাংবাদিক সমাজ অপমানিত হয়েছেন। আরিফের এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করা উচিত প্রতিটি সাংবাদিকের।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ বলেন, সিলেটের মানুষকে নিয়ে তামাশা করার অধিকার কে দিয়েছে আরিফুল হককে। আজকে সাংবাদিক কালকে ব্যবসায়ী পরশু শ্রমিক পেটানোর দুঃসাহস পান কোথায়। মানুষ আপনাকে উপরে যেমন তুলতে জানে ঠিক তেমনি টেনে হিচড়ে নামাতেও জানে। অনতিবিলম্বে নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে আপনাকে চরম মাসুল দিতে হবে।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী বলেন, সাংবাদিকরা জাতির বিবেক, আর এই সিলেটের একজন সজ্জন সাংবাদিক মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের সন্তান নাজমুল কবির পাবেল কে তার পেশাগত দায়িত্ব পালনে বাধা দিয়ে প্রমাণ করেছেন আপনি স্বৈরাচারী মনোভাব এখনো ত্যাগ করতে পারেননি। সিলেটের মানুষ শান্তিপ্রিয়। এই পূণ্যভূমিকে অশান্ত করার যে ঘৃন্য খেলায় আপনি মেতে উঠেছেন তা থেকে বেরিয়ে না আসলে এবং সাংবাদিক নাজমুল কবির পাভেলের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে সর্বস্তরের জনগণ সাথে নিয়ে আমরা মাঠে নামতে বাধ্য হব।

দৈনিক সিলেটের দিনকাল’র সাহিত্য সম্পাদক রুহুল আলম চৌধুরী উজ্জল ও কলামিস্ট এফ এইচ ফারহানের যৌথ পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন জাসদ মহানগরের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আলা উদ্দিন মুক্তা, মহানগর শ্রমিকলীগ নেতা রফিকুল আলম চৌধুরী বাবু, জয় বাংলা সাংস্কৃতিক ঐক্যজোটের সাধারণ সম্পাদক এনামুল মুনীর, দৈনিক সিলেটের দিনকাল’র প্রধান সম্পাদক আব্দুল লতিফ নুতন, দৈনিক সুদিনের সম্পাদক বাদশা গাজী, শুভ প্রতিদিনের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ফয়সল আহমদ মুন্না, সিলেট কল্যাণ সংস্থার সভাপতি এহসানুল হক তাহের, অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিলেট প্রতিদিনের সম্পাদক সাজলু লস্কর, নির্বাহি সম্পাদক দেবব্রত রায় দিপন, সিলেট বিভাগীয় যুব কল্যাণ সংস্থার সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন রশীদ চৌধুরী, সমাজসেবা সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া হিমু, সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক মো. ইসলাম উদ্দিন, আরিফুর রহমান মিসবাহ, দৈনিক আলোকিত পএিকার স্টাফ রিপোর্টার মো: আলমগীর আলম, বিডি সিলেট নিউজ ডটকম সম্পাদক মাহমুদ হোসেন খান, সুনামগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক মনোরঞ্জন তালুকদার, সাংবাদিক মো.নাঈমুল ইসলাম, ফাহাদ হোসাইন, ফটো সাংবাদিক বেলায়েত হোসেন, এস এম সুজন, একরাম হোসেন, রেজা রুবেল, রুহিন আহমদ, সুহেল আহমদ, নিজামুল হক লিটন, আশরাফ উল্লাহ ইমন, কৃতিশ তালুকদার, আবদুল্লাহ আল মামুন, এসআই সবুজ, ফুল মিয়া, জুনেদ আহমদ, রাহেল আহমদ, মাহমুদ হোসেন খান, ইসতিয়াক আহমদ চৌধুরী, সিলেটের চাকরির খবরের সম্পাদক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম নাহেদ, আলাউদ্দিন আহমেদ মুক্তা, ইসলাম আলী, দেলওয়ার হোসেন, মিটু আহমদ, আমজাদ খান, আবু বক্কর সিদ্দীকী, সেলিম আহমদ, ইমরান আহমদ।

আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সজল দাস অনিক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক উপ আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক মনিরুল হক পিনু, রক্তদাতা সংগঠন নির্বাণ সিলেটের কামাল হোসেন খান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ চৌধুরী, জেলা ছাত্রলীগের রাশেদ মিয়া, গোলাপগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি শেখ সুহেল আহমদ, পাবেল আহমদ, মাসুদ আহমদ মুন্না, সুয়েল আহমদ, আজমল আলী, নজমুল ইসলাম।

আরো উপস্থিত ছিলেন সোহেল, জুয়েল, কামরান, রাব্বি, রিদয়, এমদাদ, সাগর, জাহিদ, ইমন, সুমির, ফাহিম, এমরান, সালমান, সাকিব, সুমন, মুন্না, রুমন, জাবেদ, রবিন, সম্রাট, শাওন, তারেক, মাছুদ, মুন্না, মীর মুন্না, জিয়া আহমদ, শামিম আহমদ, মনির, রাব্বি, রাজা, আবির প্রমুখ।
–বিজ্ঞপ্তি।

Sharing is caring!

Loading...
Open