আওয়ামী লীগ সভানেত্রীকে মঞ্চ থেকে নামিয়ে দেওয়ায় সমালোচনার মুখে নাছির

চট্টগ্রামের মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এবং সাবেক মেয়র ও প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্ত্রী হাসিনা মহিউদ্দিনকে মঞ্চ থেকে নামিয়ে দেওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েছেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। মেয়র নাছিরের এমন কাণ্ডের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম নগরীতে বিক্ষোভ হয়েছে।

রোববার নগরীর কিং অব চিটাগাং নামের কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গণে চট্টগ্রামে ছয় জেলার প্রতিনিধি সভা মঞ্চ থেকে হাসিনা মহিউদ্দিন, নগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম এবং কৃষি সম্পাদক আহমদুর রহমান সিদ্দিকীকে নামিয়ে দেন নাছির। প্রধান অতিথি ওবায়দুল কাদের ঘটনার সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন না। মঞ্চে ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোশাররফ হোসেন, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক, পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর ছাড়াও একাধিক সাংসদ, কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতা।

সে সময় সভাস্থলে উপস্থিত নগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর এবং নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনার প্রতিবাদ করেন। এরপর রাতে প্রয়াত নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীরা এর প্রতিবাদে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলছেন, ‘কারও সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়নি। সাংগঠনিক শৃঙ্খলা রক্ষায় মঞ্চ থেকে নামতে বলা হয়েছিল। দলের শৃঙ্খলা সবাইকে মানতে হবে। তাহলে দল সুশৃঙ্খল ও গতিশীল হবে। নেতাকর্মীদের পরস্পরের মধ্যে সহমর্মিতা বাড়বে, শ্রদ্ধাবোধ তৈরি হবে’।

প্রতিনিধি সভার সঞ্চালক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির বলছেন, কারা মঞ্চে থাকবেন সেটা গতরাতে কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে নির্ধারিত হয়। সে অনুযায়ী নেমে যেতে বলেছি। সেভাবেই তারা নেমেছেন। অহেতুক সভাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এ বিষয়টি বলা হচ্ছে। এটা ডিসিপ্লিন, আরও এপ্রিশিয়েট করা উচিত।নিয়মের ঊর্ধ্বে কেউ না। আমাদের সিনিয়রদের কাছ থেকেই তো সবাই শিখবে কী করা উচিত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল পৌনে ১১টার দিকে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছান চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন। মঞ্চ থেকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী তাকে হাতের ইশারায় মঞ্চে ডাকেন। তখন নগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর তাকে মঞ্চে পৌঁছে দেন। হাসিনা মহিউদ্দিন অতিথিরদের দ্বিতীয় সারিতে বসেন। প্রায় ১৫ মিনিট পর সভার সঞ্চালক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন গিয়ে তাকে চেয়ার ছেড়ে উঠে যেতে বলেন এবং মঞ্চ থেকে নেমে যাবার নির্দেশ দেন। হাসিনা মহিউদ্দিন এরপরও বসে থাকলে মেয়র আবারও গিয়ে তাকে মঞ্চ থেকে নেমে যেতে বলেন। তখন তিনি মঞ্চ থেকে নেমে যান এবং সভার পুরোসময় মঞ্চের নিচে ডানপাশে একটি চেয়ারে বসে থাকেন।

হাসিনা মহিউদ্দিন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমাকে নগর আওয়ামী লীগের কেউ না কেউ ডেকেছে বলেই আমি মঞ্চে গিয়েছিলাম। সভা আহ্বান করেছে নগর আওয়ামী লীগ। সেখানে কি আমি জোর করে উঠতে পারব ? ঘটনা যা হয়েছে, সেটা নিয়ে আমি কিছুই বলতে চাই না।’

হাসিনা মহিউদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে নগর মহিলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তিনি চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের মা।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close