বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ধর্মঘটে দেশের ‘ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ’ হয়েছে : ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

১১ দফা দাবিতে বাংলাদেশের সমস্ত ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের ঘোষণায় অবাক হয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। তিনি মনে করেন, ক্রিকেটাররা ধর্মঘটের ডাক দেওয়ার আগে পুরো বিষয়টি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) জানাতে পারতেন। এভাবে মিডিয়া ডেকে প্রকাশ্যে ধর্মঘটের ঘোষণা দেওয়ার কারণে বিশ্বে বাংলাদেশের ‘ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ’ হয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

সেইসঙ্গে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে ক্রিকেটারদের দাবি-দাওয়ার সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রী।

সোমবার ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ধর্মঘটে যাওয়ার আগে ক্রিকেটাররা বিষয়টি বিসিবিকে জানাতে পারত। এমনকি আমাকেও জানাতে পারত। প্রথমেই হার্ডলাইনে যাওয়া তাদের উচিত হয়নি। এতে ক্রিকেট দুনিয়ায় দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে। তবে আমি ক্রিকেটারদের দাবিদাওয়ার প্রতি অবশ্যই সহানুভূতিশীল। বিসিবির সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই বিষয়টি সমাধান করা যাবে বলে আমি মনে করি।’

বিশ্বের চতুর্থ ধনী ক্রিকেট বোর্ড হলো বিসিবি। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের পরেই বিসিবির অবস্থান। তারপরেও ক্রিকেটাররা সঠিক বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। এখনও জাতীয় লিগে ২৫-৩০ হাজার টাকা সম্মানী নিয়েই খেলতে বাধ্য হচ্ছেন ক্রিকেটাররা। এটা বেশ আশ্চর্যের। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আরও বলেছেন, ‘এমন তো নয় যে বিসিবির অর্থনৈতিক সমস্যা আছে। তাই এটির সমাধানও তারা সহজেই করতে পারবে। বোর্ডের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। আলাপ-আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নিতে বলেছি।’

উল্লেখ্য, আজ সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে ১১ দফা দাবি উপস্থাপন করেন ক্রিকেটাররা। এসব দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া ক্রিকেটের সমস্ত ম্যাচ এমনকি অনুশীলন থেকেও বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছেন ধর্মঘটে নেতৃত্ব দেওয়া বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তাদের এই নজিরবিহীন আন্দোলনকে অনেকদিনের পুঞ্জীভূত ক্ষোভের বিস্ফোরণ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা। যে সমস্যাগুলোর কথা তুলে ধরেছেন ক্রিকেটাররা, সেগুলো বহু দিন ধরেই বলা হচ্ছিল। কিন্তু বিসিবি কর্ণপাত করেনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open