যুবলীগের আহ্বায়ক চয়ন, সদস্য সচিব হারুন

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের আসন্ন কংগ্রেসের প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে সংগঠনের জ্যেষ্ঠ প্রেসিডিয়াম সদস্য চয়ন ইসলামকে এবং সদস্য সচিব করা হয়েছে সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদকে। এর আগে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে সংগঠনের সকল প্রকার কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

রোববার (২০ অক্টোবর) রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদকদের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ওই বৈঠকে পাশাপাশি যুবলীগের নেতাকর্মীদের বয়সসীমা অনুর্ধ্ব ৫৫ করা হয়েছে। গণভবন থেকে বেরিয়ে গণমাধ্যমকে একথা জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

গণভবন সূত্রে জানা গেছে, যুবলীগের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠকে সংগঠনটির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। সংগঠন পরিচালনায় গঠনতন্ত্রকে অবজ্ঞা করে যুবলীগ চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়টি তুলে ধরেন অনেকেই। এ সময় যুবলীগ চেয়ারম্যানকে বাদ দিয়েই আসন্ন জাতীয় কংগ্রেসের প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা। শুধু চেয়ারম্যানই নয়, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তাদের সকলকেই সম্মেলনের সকল কার্যক্রম থেকে বিরত রাখতে নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা। গণভবনের এই বৈঠকেও উপস্থিত ছিলেন অভিযুক্ত নেতারা। তাদের ছাড়াই বাকিদেরকে নিয়ে গণভবনে আসতে বলেন শেখ হাসিনা।

বৈঠক সূত্রে আরও জানা গেছে, যুবলীগের নেতাকর্মীদের জন্য বিভিন্ন সময় বয়সসীমার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা ওঠে বৈঠকে। যুবলীগের নেতাকর্মীদের বয়স অনুর্ধ্ব ৫৫ এর মধ্যে রাখার বিষয়টি বিবেচিত হয় সভায়। এ ছাড়া সংগঠনের বর্তমান শূণ্য পদগুলোতে নতুন করে ভারপ্রাপ্তদের দায়িত্ব দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয় সভায়।

চয়ন ইসলাম যুবলীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটির চার নম্বর প্রেসিডিয়াম সদস্য। যথাক্রমে তার আগের তিনজন হচ্ছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মীজানুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর পরিবারের আত্মীয় শেখ ফজলুর রহমান মারুফ, চুয়াডাঙার জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ শামসুল আবেদীন। ১ ও ৩ নম্বর প্রেসিডিয়াম সদস্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকায় এবং দুই নম্বর প্রেসিডিয়াম সদস্যের নামে অনলাইন ক্যাসিনো কারবারের অভিযোগ ওঠায় চয়ন ইসলামকে আহ্বায়ক করা হয় বলে জানা গেছে।

চয়ন ইসলামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর। তার বাবা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলেন। তিনি ও তাদের পুরো পরিবার আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে বঙ্গবন্ধুর সময় থেকেই সক্রিয়।

সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ। নরসিংদীর সন্তান হারুনুর রশিদ দীর্ঘদিন থেকেই যুবলীগে সক্রিয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open