শিক্ষাক্ষেত্রে সিলেটের গৌরবোজ্জল ইতিহাস পুনরূদ্ধার করতে হবে –মেয়র আরিফ

নিজস্ব প্রতিবেদন: সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন, শিক্ষাক্ষেত্রে সিলেটের রয়েছে গৌরবোজ্জল ইতিহাস। ব্রিটিশ শাসিত ভারত উপমহাদেশে সিলেটের সুরমাভ্যালি ছিল সবচেয়ে শিক্ষিত জনপদের নাম। দেশবিভক্তির পর কালক্রমে আমরা হারিয়ে ফেলেছি আমাদের সেই সোনালী ইতিহাস। তাই শিক্ষাক্ষেত্রে সিলেটের গৌরবোজ্জল ইতিহাস পুনরূদ্ধারে সর্বাত্মক চেষ্ঠা চালিয়ে যেতে হবে। শিক্ষক-শিক্ষার্থী অভিভাবকসহ সকল মহলকে আরো সচেতন হতে হবে। সরকারী উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারীভাবেও আমাদেরকে উদ্যোগী হতে হবে। বিশেষ করে নারী শিক্ষা ও নারীর অগ্রগতির দিকে আমাদেরকে বিশেষভাবে যতœ নিতে হবে। তিনি বলেন, নারী শিক্ষার উন্নয়ন ও নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে মেট্রোসিটি উইমেন্স কলেজ অগ্রণীর ভূমিকা পালন করছে এবং এ কলেজ মাইল ফলক হয়ে কাজ করবে বলে আমি আশাবাদী।মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী রোববার মেট্রোসিটি উইমেন্স কলেজে তাঁকে দেয়া সংবর্ধনার জবাবে এ কথাগুলো বলেন। বক্তৃতাকালে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী মেট্রোসিটি উইমেন্স কলেজের উন্নয়নে তাঁর পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

কলেজ ক্যম্পাসে আয়োজিত এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মেট্রোসিটি উইমেন্স কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও দৈনিক বিজয়ের কণ্ঠ’র সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মুসলেহ উদ্দিন খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌফিক বকস লিপন, ২২ নং
ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিম, দি এইডেড হাই স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এম এ হান্নান ও দৈনিক বিজয়ের কণ্ঠ সম্পাদক ও প্রকাশক জে. এ কাজল খান।
মাজহারুল হক চৌধুরী সালমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আহমদ সালেহ বিন মালিক। অন্যদের মধ্যে ছিলেন কলেজ শিক্ষক আলাউদ্দিন আলাল, আয়েশা আক্তার, মোস্তফা শাহাদাত আদনান, শফি উদ্দিন, পপি বিশ্বাস, গোলাম রাব্বানী, তাহমিনা হক প্রমুখ।
অনুষ্ঠান শেষে কলেজের পক্ষ থেকে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও অনুষ্ঠানের সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মুসলেহ উদ্দিন খান।

Sharing is caring!

Loading...
Open