তেররতন এলাবাসীর সাথে মিসেস সেলিনা মোমেনের মতবিনিময়

স্বামী নির্বাচনে প্রার্থী হলে স্ত্রী প্রচারণায় অংশ নেবেন। ভোটারের দ্বারে দ্বারে ঘুরবেন- এটাই স্বাভাবিক। তবে নির্বাচনে স্বামী পাশ বা ফেল যাই করুন না কেন পরবর্তী পাঁচ বছর আর দেখা মেলে না প্রার্থীদের স্ত্রীর। কিন্তু এই চিরাচরিত নিয়মের মাঝেও ব্যতিক্রম সেলিনা মোমেন।

নির্বাচনের সময় সেলিনা মোমেন বিভিন্ন স্থানে গিয়ে নারীদের নানা সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।আশস্থ করেছিলেন, ফলাফল যাই হোক তিনি তাদের পাশে থাকবেন। কথা রেখেছেন তিনি।ড. মোমেন এমপি ও পরবর্তীতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর কথা দিয়ে আসা সেইসব নারীদের ভুলেননি সেলিনা মোমেন। ব্যক্তিগত ও সরকারী অর্থায়নে তিনি তাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করে চলছেন।

সিলেট-১ আসনভূক্ত এলাকার অনেক গরীব,অসহায়, দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত নারীদের হাতে তুলে দিয়েছেন অনুদান।সরকারি অনুদানের টাকা আর ঢেউটিনও তুলে দিয়েছেন তাদের হাতে।পানি সংকট সমাধানে সরকারি অর্থায়নে বসিয়ে দিয়েছেন গভীর নলকূপ। গরীব-দু:খীদের সাহায্য করার মানসিকতা ও তাদের দুর্দশা লাঘবের ঐকান্তিক চেষ্টার কারণে তিনি সিলেট নগর ও সদর উপজেলার অনেক মানুষের কাছে মহিয়সী নারী হিসেবে পরিচিতিও পেয়েছেন।

এই মহিয়সীকে সিলেটের সাধারণ নারীরা কতটুকু আপন ভাবেন তার প্রমাণ পাওয়া গেছে নগরীর ২৪ নং ওয়ার্ডের তেররতন এলাকা বাসীর সাথে মতবিনিময় সভায়,সভায় জেলা ছাএলীগ নেতা আব্দুস সাদিক তারেক এর পরিচালনায় ও তেররতন বাজার ব্যাবসায়ীর সমিতির সভাপতি আক্তার হোসেন সেকর এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.আব্দুল মোমেন এর সুযোগ্য সহধর্মিণী মিসেস সেলিনা মোমেন,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২২,২৩,ও ২৪ ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর রেবেকা আক্তার লাকী,সিলেট জেলা মহিলা আওয়ামীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হেলেন আহমদ,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২৪ নং ওয়াড আওয়ামিলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনাম আহমদ সহ জালাল আহমদ সাহেদ,কুনু মিয়া,হাবিব আহমদ,জাবুল মিয়া সহ অন্যান্য,বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open