গোয়াইনঘাটে গ্রাম পুলিশের মধ্যে ছাতা ও টর্চলাইট বিতরণ করলেন এসপি ফরিদ উদ্দিন

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি:: গোয়াইনঘাট উপজেলায় গ্রাম পুলিশের সদস্যদের মধ্যে টর্চলাইন ও ছাতা বিতরণ করেছেন সিলেটে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন। এ সময় তিনি সিলেটভিউকে বলেন, ‘দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন করতে এসপির নিজস্ব তহবিল থেকে গোয়াইনঘাট উপজেলার ৮১ জন গ্রাম পুলিশের মধ্যে ছাতা ও টর্চলাইট বিতরণ করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘একটি ইউনিয়ন পরিষদের নয়টি ওয়ার্ডে রয়েছেন ৯ জন গ্রাম পুলিশ। গ্রাম পুলিশ পদে নিয়োগের সময় প্রতিটি ওয়ার্ডের স্থায়ী বাসিন্দাদের নিয়োগ দেয়া হয়। ওয়ার্ডের স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে গ্রাম পুলিশ সদস্যরা নিজ ওয়ার্ডের প্রতিটি মানুষ সম্পর্কে ভালো জানেন। সমাজের ভালো মানুষের পাশাপাশি দুষ্কৃতিকারীদের সম্পর্কে তাদের সঠিক ধারণা রয়েছে। সুতরাং গ্রাম পুলিশের সদস্যরা নিজেদের কাজ সম্পর্কে সচেতন হলে এবং পুরোপুরিভাবে সঠিক তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করলে সমাজ থেকে সকল প্রকার অপরাধ নির্মুল করা সম্ভব। তাই গ্রাম পুলিশদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা, দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন ও কাজের অগ্রগতি বাড়াতে তাদের মধ্যে ছাতা ও টর্চলাইট বিতরণ করা হয়েছে।’

পুলিশ সুপার আরো বলেন, ‘বৃষ্টি বাদল ও অন্ধকারকে পিছনে ফেলে যে সকল গ্রাম পুলিশের সদস্য সমাজ থেকে জঙ্গিবাদ, মাদক, জুয়া, চুরি, ডাকাতিসহ সকল প্রকার অপরাধ প্রবণতা বন্ধে পুলিশকে সহযোগিতা করবেন, তাদের জন্য রয়েছে পুরস্কারের ব্যবস্থা।’

ফরিদ উদ্দিন সুরমা টাইমসকে বলেন, ‘গ্রাম পুলিশের প্রতিজন সদস্য যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করলে কোথাও সোর্সের প্রয়োজন হবে না। সাম্প্রতিক সময়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরকে যারা তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেন তাদের মধ্যে অনেকেই কোন এক সময় নানা অপরাধের সাথে জড়িত ছিল। ফলে ওইসব সোর্সের দেয়া তথ্যের উপর পুরোপুরি বিশ্বাস করা কঠিন হয়ে পড়ে। সোর্সের দেয়া তথ্যের সঠিক নিশ্চয়তা না থাকায় অধিকাংশ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজের ব্যাঘাত ঘটে।’

টর্চলাইট ও ছাতা বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সার্কেল সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম, গোয়াইনঘাট থানার ওসি আব্দুল আহাদ, পরিদর্শক (তদন্ত) হিল্লোল রায় উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open