ছাত্রলীগ কর্মী জাহিদ হত্যা মামলার সাক্ষিকে আসামির হুমকি,থানায় জিডি

সিলেটে ছাত্রলীগ কর্মী আবুল হোসাইন জাহিদ হত্যা মামলার দুজন স্বাক্ষীকে ধরে নিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছে জামিনে থাকা সালমান ও ফজর আলীসহ তার সহযোগীরা।এ ঘটনায় সিলেট মহানগর পুলিশের শাহপরাণ থানায় নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়রি নং (৭৮৭) দায়ের করেন।

সৈদানীবাগ এলাকার বাসিন্দা সানি খাঁ।শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে তিনি এ সাধারণ ডায়রি করেছেন বলে নিশ্চিত করেন থানার ওসি কাইয়ুম চৌধুরী।তিনি জানান বিষয়টি পুলিশ গুরত্বসহকারে খতিয়ে দেখছে।পুলিশ সূত্রে জানায় যাদের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকির অভিযোগ আনা হয়েছে এদের মধ্যে দুজনই ছাত্রলীগ কর্মী আবুল হোসাইন জাহিদ হত্যা মামলার প্রধান আসামী ফজর আলী ও সালমান।

তারা দুজনই হবিগঞ্জ মাধবপুর থানাধীন মৌজপুর গ্রামের হাছন আলীর ছেলে। বর্তমানে তারা নগরের শাহপরাণ থানাধীন মজুমদারপাড়া এলাকায় বসবাস করে আসছে। এছাড়াও জিডিতে সোনারপাড়া এলাকার রাসেল আহমদ ও শামীম আহমদ নামের আরও দুজনের নাম উল্লেখ করা হয়। এরা হত্যা মামলার আসামী সালমানের সহযোগী।জিডি সূত্রে জানা যায় জাহিদ হত্যা মামলাটি বর্তমানে আদালতের নির্দেশে তদন্ত করে যাচ্ছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। হত্যা মামলায় কয়েকমাস জেলখাটার মামলার আসামী ফজর আলী ও সালামান।গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে হত্যা মামলার স্বাকী শাহপরাণ থানাধীন বাহুবল এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে সাকিব ও জিডির বাদী সানি খাঁ শিবগঞ্জ পয়েন্টে সিএনজি অটোরিকশার জন্য অপেক্ষা করছিলেন।

এসময় সালামান, ফজর আলী, রাসেল আহমদ ও শামীম আহমদসহ অজ্ঞাত কয়েকজন ছোরা ও লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মারমুখি আচরণ করে। এসময় তাদেরকে মারপিঠ না করার জন্য কাকুতি মিনতি করে জাহিদ হত্যা মামলায় আদালতে স্বাক্ষ্য না দেয়ার জন্য নিষেধ করে।অন্যথায় তারা হত্যা করার হুমকি দেয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open