কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদারের গল্পে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলা সাহিত্যের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজুমদারের নতুন বই ‘অপরিচিত জীবনযাপন’ প্রকাশ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন লেখক।শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় বাতিঘর সিলেট শাখায় বই প্রকাশনা উপলক্ষে পাঠকের সাথে ‘বই প্রকাশের গল্প’ নামে একটি আড্ডায় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন তিনি।তার উপন্যাস গর্ভধারিণীর

সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে স্মৃতি চারণ করেন।সমরেশ মজুমদার বলেন, শেখ হাসিনার সাথে যখন আমার পরিচয় তখন তিনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন না।একদিন উনার বাসায় দাওয়াত দেন।চা খাচ্ছি এমন সময় শেখ হাসিনা বলে

উঠলেন আপনিতো একজন সরকারি কর্মকর্তার মেয়েকে নষ্ট করেছেন। আমি আশ্চর্য হলাম।আবারো জিজ্ঞাস করলাম আমি নষ্ট করেছি! তিনি বললেন হ্যাঁ।আপনার গর্ভধারিণী বই পড়ে ওই সরকারি কর্মকর্তার মেয়ে পালিয়ে গিয়েছে।কারণ সে জয়িতা হতে

চায়। মেয়েটিকে এখন তার তার বাবা মা বাসায় বন্দি করে রেখেছে।তিনি বলেন তারপর আমি গেলাম মেয়েটির বাসায়।

বাসায় গিয়ে যখন বললাম আমি সমরেশ মজুমদার তখন তার মা খুশিও হলেন, রাগও করলেন।তিনি রাগ করে বললেন আপনি আমার মেয়ের জীবন নষ্ট করেছেন।তখন আমারও খারাপ লাগলে।শেষে তিনি তার মেয়েকে ডেকে বললেন সমরেশ মজুমদার

এসেছেন। সেতো বিশ্বাস করছে না রুমের দরজাও খোলছে না। অনেক বলার পর দরজার খুলে সে। আমি দরজার ফাঁক দিয়ে দেখলাম ১৮ বছর বয়সের একটি মেয়ে।সমরেশ মজুমদার বলেন আমাকে দেখে মেয়েটি বলে ‘আপনি সমরেশ মজুমদার হতে পারেন না।মাকে বলছে তোমরা আমাকে মিথ্যা কথা বলছো। উনি সমরেশ মজুমদার না।পরে আমার বইয়ের শেষের পৃষ্টা দেখিয়ে বলল

উনি সমরেশ মজুমদার।আপনি না।মূলত ওই বইতে আমার যুবক বয়সের একটি ছবি দেওয়া। আর আমি যখন ওর কাছে গিয়েছি তখন আমার বয়স হয়ে গেছে। তাই হয়তো ও চিনতে পারেনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open