স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর পিলারে পাকিস্তান মুছে বাংলাদেশ

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ‘সীমান্ত পিলার’ থেকে PAKISTAN/PAK লেখা অপসারণ করে BANGLADESH/BD লেখার কার্যক্রম সম্পন্ন করছ।

এখন থেকে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের কোনো পিলারে PAKISTAN/PAK লেখা থাকবে না;থাকবে স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশের নাম।PAKISTAN/PAK এর স্থলে BANGLADESH/BD লেখা প্রতিস্থাপনের ফলে বিজিবিসহ সীমান্তবর্তী

মানুষের মনোবল আরও অনেকগুন বেড়ে গেছে।এছাড়া বিজিবিকে অত্যন্ত দ্রুত ও নিখুঁতভাবে কাজটি করতে দেখে সীমান্তবর্তী এলাকার বাসিন্দাসহ দেশের সাধারণ জনগণ বিজিবিকে সাধুবাদ জানিয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রী ও বিজিবি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে।

দেশের মানুষ বিশ্বাস করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সবসময়ই অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। সীমান্ত পিলারের নাম পরিবর্তন সেই ভূমিকারই আরও একটি অনন্য ও উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

বিজিবিকে সীমান্ত পিলারের নাম পরিবর্তনের গুরুত্বপূর্ণ ও মহান দায়িত্ব দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বিজিবি’র সকল সদস্য অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে।১৯৪৭ সালে ভারত-পাকিস্তান বিভক্তির পর ৮ হাজারের অধিক পিলারে ইংরেজিতে খোদাই করে IND-PAK/INDIA-PAKISTAN লেখা ছিলো।মূলতঃবাংলাদেশের

সাতক্ষীরা,যশোর,চুয়াডাঙ্গা,কুষ্টিয়া,রাজশাহী,চাঁপাইনবাবগঞ্জ,নওগাঁ,
পঞ্চগড়,কুড়িগ্রাম,নেত্রকোনা,ময়মনসিংহ,জামালপুর,সুনামগঞ্জ, সিলেট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া,কুমিল্লা ও চট্টগ্রাম সীমান্তের অনেক পিলারে PAKISTAN/PAK লেখা ছিল।১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে পাকিস্তান হতে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভের এতো বছর পরও সীমান্ত পিলারগুলি হতে PAKISTAN/PAK শব্দটি মুছে দিয়ে তদস্থলে স্বাধীন বাংলাদেশের নাম না লেখার বিষয়টি সীমান্তের মানুষ এবং যারা বিষয়টি জানেন তাদের কাছে সত্যিই বিড়ম্বনার।

বিষয়টি নজরে আসার সাথে সাথে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম, বিজিবিএম, এনডিসি, পিএসসি অধীনস্থ রিজিয়নসমূহকে প্রয়োজনীয় দিক নিদের্শনা প্রদান করেন এবং বিজিবি’র নিজস্ব তহবিল দিয়ে ঐসকল সীমান্ত পিলারের PAKISTAN/PAK লেখা পরিবর্তন করে BANGLADESH/BD লেখার কাজ শুরু করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close