সেই শামীমের পাশে দাঁড়ালেন গোলাপগঞ্জের ইউএনও মামুনুর রহমান

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: ‘৭০হাজার টাকার জন্য মরতে বসেছেন শামীম’ শিরোনামে আর্থিক সহযোগগিতা চেয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউপির বারকোট গ্রামের মৃত আব্দুন নুরের ছেলে অটোরিকশা চালক শামীম আহমদ কিডনী রোগে আক্রান্ত হয়ে শয্যাশয়ী আছেন তিন মাস ধরে। অর্থের অভাবে বিনা চিকিৎসায় দু’টি কিডনীই এখন অকেজো প্রায়।

সেই খবর পেয়ে অসুস্থ শামীমের পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।

রবিবার (৮ই সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় শামীম আহমদের বাড়িতে দেখতে গিয়ে তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং তার হাতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ৫হাজার টাকা আর্থিক অনুদান তুলে দেন।

এসময় তিনি বলেন, নিজের সাধ্যমত শামীমের জন্য এটা আমার ক্ষুদ্র প্রয়াস। শামীমের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত আবেদন পেলে আরও সহযোগিতা করা হবে। আমরা সবাই সহায়তার হাত বাড়ালে শামীম আহমদ সুস্থ হয়ে আবার কাজে ফিরতে পারবেন। পাশাপাশি আর্থিক কারণে অসুস্থ শামীমের ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া যাতে ব্যাহত না হয় সে লক্ষ্যে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি।

কিডনী রোগে আক্রান্ত শামীম আহমদের স্ত্রী পারভীন বেগম বলেন, আমার স্বামী পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলেন। বর্তমানে তিনি অসুস্থ হওয়ার পর থেকে চিকিৎসা ব্যয় বহন করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। আমাদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।

Sharing is caring!

Loading...
Open