ছাত্রীকে নির্যাতনের পর অর্ধনগ্ন করে ছবি তোলেন প্রধান শিক্ষক!

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার রাজনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে নির্যাতনের পর অর্ধনগ্ন ছবি তোলার অভিযোগে উঠেছে। এই অভিযোগে পুলিশ অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মো. মন্তাজ আলীকে গ্রেপ্তার করে রোববার (৮ই সেপ্টেম্বর) আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

এর আগে শনিবার (৭ই সেপ্টেম্বর) রাতে কুলাউড়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই স্কুল ছাত্রীর ফুফু।

মামলার অভিযোগে সূত্রে জানা যায়, গত ২০ জুলাই প্রধান শিক্ষক মন্তাজ আলী ওই ছাত্রীকে দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষার ফি প্রদানে বিলম্বের কারণ জানতে তার ছেলেকে দিয়ে অফিস কক্ষে ডেকে নেন। এ সময় প্রধান শিক্ষক অফিসের দরজা বন্ধ করে জালিবেত দিয়ে এলোপাথাড়ি মারপিট করলে ছাত্রীর পিঠে ও হাতের বিভিন্ন জায়গা ফুলে যায়।

ঘটনার তিন দিন পর বুধবার স্কুলছাত্রীর পিঠের জখম দেখার কথা বলে তার পরনের কামিজ খুলে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করেন এবং মোবাইল ফোনে কয়েকটি আপত্তিকর ছবি তুলেন। এবং এসব কথা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে বলেন, কাউকে কিছু বললে ছবিগুলো ছড়িয়ে দেয়া হবে।

পরে এই ঘটনা ছাত্রীর পরিবার জেনে গেলে মামলা দায়ের করেন।

এবিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আইয়ুর উদ্দিন জানান, একজন সহকারী শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে ঘটনার তদন্ত করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনটি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে প্রেরণ করা হয়েছে।

অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষককে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open