এয়ারপোর্ট ও দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার তিন

এয়ারপোর্ট থানার এসআই আহসান কবির সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এয়ারপোর্ট থানাধীন লাক্কাতুরা বাজারস্থ মতিন মিয়ার সিএনজি ওয়ার্কসপের সামনে পাকা রাস্তার পূর্ব পাশে হতে বিকাল অনুমান ১৭.১৫ ঘটিকার সময় ১।মামুন আহমদ(৩৬),পিতা-আনোয়ার হোসেন@ আনু মিয়া,সাং-

বাসা নং-১২৬/২ রংধনু,চৌকিদেখী, ২। সোহেল আহমদ(৪১)পিতা-ইব্রাহীম হোসেন@ভিরাই মিয়া,সাং-উদয়ন ৩৫/৪,পশ্চিম চৌকিদেখী উভয় থানা-এয়ারপোর্ট,জেলা-সিলেটদ্বয়কে ধৃত করতঃ সাক্ষীদের উপস্থিতিতে উক্ত আসামীদ্বয়ের দেহ তল্লাশী করিয়া তাদের হেফাজত হতে সর্বমোট ০৫(পাঁচ) বোতল কথিত ফেনসিডিল উদ্ধার পূর্বক জব্দতালিকা প্রস্তুত করেন।উল্লেখিত আসামীর

বিরুদ্ধে এয়ারপোর্ট থানার মামলা নং-০৭,ধারা-২০১৮ সনের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬(১) এর ১৪(খ) রুজু করা হয়। মামলা তদন্ত অব্যাহত আছে।অপর দিকে দক্ষিণ সুরমা ফাঁড়ীর এসআই/মোঃ শাহিন মিয়া, সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ দক্ষিণ সুরমা থানা এলাকায় অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্বার অভিযান পরিচালনাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দক্ষিণ সুরমা থানাধীন

ঝালোপাড়া মসজিদ সংলগ্ন সাগার অটো ইঞ্জিনিয়ারিং এর দোকানের ভিতর পৌছালে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বর্ণিত আসামী দৌড়ে পলায়নের চেষ্টাকালে সঙ্গীয় অফিসারও ফোর্সের সহায়তায় আসামী ১।ইসলাম উদ্দিন (৩৩),পিতা-মৃতআব্দুন নূর,মাতা-

আফতারুন নেছা,সাং-হিম্মতের মাটি,পোঃসড়কের বাজার, থানা-কানাইঘাট,জেলা-সিলেট, বর্তমানে-গোটাটিকর, কয়ছর মিয়ার বাসা, থানা-মোগলাবাজার,জেলা-সিলেটকে ২০ (বিশ)পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গ্রেফতার করেন। পরবর্তীতে বর্ণিত আসামী ও

আলামত সহ এসআই(নিঃ)/মোঃ শাহিন মিয়া বাদী হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করিলে দক্ষিণ সুরমা থানার মামলা নং-০৬, ,ধারা-২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ৩৬(১)এর ১০ (ক)রুজু করা হয়।বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open