আলোচিত জাহিদ হত্যা মামলার ৫ আসামিকে বাদ দিয়ে চার্জশিট দাখিল করেছিল পুলিশ

সিলেটের উপশহরের আলোচিত জাহিদ হত্যা মামলার ৫ আসামিকে বাদ দিয়ে চার্জশিট দাখিল করেছিল পুলিশ।এর মধ্যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে এমন আসামিদের চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়।তবে-আদালত পুলিশের এ চার্জশিট আমলে না নিয়ে ফের সেটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআইকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি এ চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। ২০১৮ সালের ২৫শে অক্টোবর ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে নগরীর উপশহরে মারা যান ছাত্রলীগ কর্মী হুসাইন আল জাহিদ।২৭শে অক্টোবর নিহতের পিতা আবুল কালাম বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ ও ১০-১৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে শাহপরান (রহ.) থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।এ খুনের ঘটনায় উপশহরজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়।

মামলার পর আসামি ফজর আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।পরবর্তীতে আদালত ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করে।

আসামি তার জবানবন্দিতে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি সালমান,আরমান,শাহেদ ও রাহাত হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত বলে জানিয়েছে। এ ছাড়া নয়ন, ছোট জাহিদ ও ইয়াছিন আহমদ তায়েফ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত বলে আদালতের কাছে স্বীকার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরান থানার রাজীব কুমার রায় এজাহারভুক্ত ৯ আসামির মধ্যে ৫ জনকে অব্যাহতি দিয়ে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন।মামলার প্রধান আসামি ফজর আলী ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে ছোট জাহিদ ও নয়ন নামের ২ জনের নাম ঘটনার

সঙ্গে জড়িত উল্লেখ করলেও পুলিশ চার্জশিট থেকে তাদের নামও বাদ দেয়।তদন্ত কর্মকর্তা মামলার আসামি রাহাত,উবায়দুল,নয়ন ও ছোট জাহিদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি দেখিয়ে তাদেরকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন।কিন্তু নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি

এমন অজুহাতে মামলা থেকে আসামিকে বাদ দেয়াকে অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেন আদালত।আদালত বলেন,যেহেতু এটি একটি হত্যাকা- বিধায় নাম ঠিকানা নিরূপণ করার চেষ্টা দরকার। মামলার বাদী উপশহরের বাসিন্দা মো. আবুল কালাম অভিযোগ

করেন- পুলিশ তাদেরকে কোনো কিছু না জানিয়েই মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ঘটনার মূলহোতাদের অব্যাহতি দিয়ে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে। পরে তারা এ মামলার চার্জশিটের ওপর নারাজি দেন। তিনি জানান- এজাহারভুক্ত আসামি উবায়দুল

আরব আমিরাতে ও এনায়েত সৌদি আরবে পালিয়ে গেছে। তাদেরকে দেশে এনে ও এই হত্যাকা-ের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিচার করার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open