সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘবে বীট পুলিশিং কার্যক্রম: দিরাইয়ে ডিআইজি

দিরাই প্রতিনিধি :: পুলিশের সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান বলেছেন, অজোপাড়াগায়ের সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘব করা এবং পুলিশি সেবা মানুষের খুব কাছে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে বীট পুলিশিং এর কার্যক্রম। এ কার্যক্রমে নির্দিষ্ট এলাকায় স্থায়ীভাবে দায়িত্ব পালনকারী পুলিশ অফিসার নিজ বিবেচনা থেকে এলাকায় পুলিশিং করে থাকবেন, এক্ষেত্রে তার নির্ধারিত এলাকায় অপরাধ সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে এলাকাবাসীর হয়ে কাজ করবেন পুলিশ অফিসার। এলাকার মানুষের কাছে তাদের নিজেদের পুলিশ অফিসার বলেই প্রতীয়মান হবে।

তিনিা বলেন, কেবল আইন প্রয়োগ বা শৃঙ্খলা রক্ষা নয়, এলাকার সকল সমস্যা সমাধানের নিয়ামক শক্তি বীট পুলিশিং কাজ করবে। ফৌজদারি, সামাজিক, পারিবারিক এমনকি রাজনৈতিক সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রেও বীট পুলিশিং অফিসার এগিয়ে আসবে। মাদক ব্যবসায়ী ও অন্য অপরাধীদের তালিকাও তৈরি করে ইউনিয়নে বসেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে, আপনারা তথ্য দিয়ে বীট পুলিশিং অফিসারকে সহযোগিতা করবেন এ আমার বিশ্বাস।

বুধবার বিকাল ৫ টায় উপজেলার রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে বীট পুলিশিং সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সৌম্য চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আব্দুল্লাহ আল আমিন’র সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউনিয়নের বীট পুলিশিং অফিসার এসআই রুপক কর্মকার। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন সিকদার, সহকারী পুলিশ গৌতম দেব, দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম নজরুল ইসলাম, দিরাই উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোহন চৌধুরী।

উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাদিকুর রহমান, দিরাই অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার, কোষাধ্যক্ষ মুক্তার হোসেন, যুবলীগ নেতা কাইয়ূম মিয়া, আজহারুল ইসলাম আজহার সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। প্রসঙ্গত অন্য সেবার মতো পুলিশি সেকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছাতেই এক বছর আগে এ কার্যক্রমটি শুরু করেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান।

Sharing is caring!

Loading...
Open