১টি কেমো থেরাপির অভাবে মরে যাচ্ছে তিন সন্তানের পিতা আনিক!

 

নিজস্ব প্রতিনিধি::এবার ক্যান্সারের সাথে লড়ছেন ৩সন্তানের মাথা রাখার টাই বাবা আনিক।বাবা ছাড়া পৃথিবীতে তাদের আর কেউই নেই। বাবাকে সুখে করতে ৩সন্তানের ভবিষৎ নেই ছোট ছোট সোনার বাংলার ৩টা সোনামনি’র জীবনের সমস্ত সুখের স্বপ্নকে বিসর্জন দেয় বাবার লিভার ক্যান্সারে।

কিন্তু ছোট বাচ্চাদের সুখ যেন কপালে নেই। চার(০৪) বছর আগে মরণব্যাধি লিভার,ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন আনিক। সহৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতায় ৬টি কেমো শেষে দীর্ঘ চিকিৎসার পর সে একটু সুস্থতার অাবাস পায়। কিন্তু ৬টা কেমো থেরাপি শেষ করে অারো ১টা কেমো থেরাপির জন্য মরে যাচ্ছে ৩ সন্তানের বাবা আনিক।সবার আর্থিক সাহায্য সহযোগিতায়

বাঁচতে পারে একটি জীবন এমনি অসহায় ও দরিদ্র একটি পরিবার।লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত আনিক মিয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাছিনা ও সমাজের বিত্তবান দানশীলদের কাছে চিকিৎসার জন্য সহায়তার(ভিক্ষার হাত)হাত বাড়িয়েছেন।আনিক মিয়া রাজন সুনামগঞ্জ

জেলার ছাতক উপজেলার জাউয়াবাজার ইউনিয়নের,বড়কাপন বানায়ত গ্রামের দিনমজুর কমর আলীর ছেলে।গোবিন্দগঞ্জ আব্দুল হক স্মৃতি কলেজের সাবেক মেধাবী ছাত্র সে। আনিকের মা বাবার স্বপ্ন ছিল মেধাবী দরিদ্র পরিবারের ছেলে আনিক সংসারের হাল ধরবে,ফিরবে আর্থিক সচ্ছলতা।কিন্তু ভাগ্যের নিমর্ম পরিহাস লিভার ক্যান্সার হয়ে আনিকের এবং পরিবারের সব স্বপ্ন ভেঙ্গে

দিয়েছে।দীর্ঘ তিন(০৩)বছর ধরে লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করেছিল হাসপাতালের বিছানায়। দীর্ঘদিন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তার মুরছালিন স্যারের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিল।উন্নত চিকিৎসার জন্য

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল হাসপাতালে বহুদিন চিকিৎসাধীন ছিল। লিভার ক্যান্সার থেকে মুক্তিপেতে চিকিৎসকরা বলেছেন ৭টি কেমোথেরাপী নিতে ৩/৪ লক্ষ টাকার প্রয়োজন তার মধ্যে ৬ টি কেমো থেরাপি সম্পন্ন হয়েছে। আরো  ১ টা কেমো

থেরাপির বিশাল ব্যয় বহন করতে পারছে না অানিকের দারিদ্র দিনমজুর পরিবার।৬ টি থেরাপি করার ফলশ্রুতিতে তার শরীরের অবস্থা বেশ উন্নত ছিল।কিন্তু বর্তমানে ১ টা কেমো থেরাপি ও প্রত্যেক সপ্তাহের রবিবার দেওয়া হয় এক হাজার তিনশত পঞ্চাশ(১৩৫০)টাকা-র একটি করে “বেকসিন” নেওয়া লাগে।এই কিছু সংখ্যক টাকার জন্য দিন দিন বেরে চলছে আনিকের শারীরিক অবস্থা অবনতি।উল্লেখ্য যে,০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮সালের রিপোর্টে,আনিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলেছে আপনাদের পূর্বেকার আরো একটি সংবাদ পেয়ে তাকে যথেষ্ট সাহায্য সহযোগীতা ও দোয়া করেছেন বলে সে অাপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। তাই সেই ভরসায় বাঁচার প্রচেষ্টায় অানিক বর্তমান সরকারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য এবং সমাজের বিত্তবান,দানশীল ব্যাক্তি বর্গ সহ সকলের কাছে মানবিক সাহায্য ও দোয়া কামনা করেছেন আনিক ও তার দিনমজুর পরিবার।
আনিককে সাহায্য করার জন্য নিচে আনিকের অভিবাবকের ব্যবহৃত।

মোবাইল নং-০১৭৮৫-৮৭৪৫৫০(বিকাশ)
অথবা ডাচ বাংলা ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং ০১৭৮৫-৮৭৪৫৫০৪।
এবং সোনালী ব্যাংক ছাতক শাখা,একাউন্ট নং 5902201026473।

Sharing is caring!

Loading...
Open