ছিনতাই করে পালিয়ে গিয়েও পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পেলেন না ইব্রাহিম আলী


গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি: ছিনতাই করে পালিয়ে গিয়েও পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পেলেন না ইব্রাহিম আলী নামে এক ছিনতাইকারী।
অভিনব কায়দায় গোলাপগঞ্জ চৌমুহনী থেকে মায়া বেগম নামে এক বৃদ্ধা মহিলার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনার দেড় মাস পর পুলিশের খাঁচায় ধরা পড়লেন ছিনতাইকারী ইব্রাহিম আলী (৫০)। তিনি মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ রাসটিল্লা গ্রামের মৃত তুফান আলীর ছেলে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কমলগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতায় গোলাপগঞ্জ মডেল থানার উপ-পরিদর্শক নূর হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) গভীর রাতে আসামীর এলাকায় অভিযান চালিয়ে এজহার নামীয় এ আসামীকে তার নিজ বাড়ী থেকে আটক করে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ছিনতাইয়ের ঘটনা শিকার করেছে ও বুধবার (৭ আগস্ট) তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

এর আগে চলতি বছরের ১৬ জুন (রোববার) উপজেলার ফুলবাড়ী ইউনিয়নের হাজীপুর শুকনা গ্রামের আব্দুল মতিনের স্ত্রী মায়া বেগম (৫৫) গোলাপগঞ্জ ইসলামী ব্যাংক লিঃ থেকে উত্তোলনকৃত ১০হাজার ৫০০টাকা ও ব্যাগে রক্ষিত লক্ষাধিক টাকাসহ মোট ১লক্ষ ১৫হাজার ২০৫টাকা নিয়ে বাড়ী ফিরছিলেন।ব্যাংকের দু’তলা থেকে নিচে নামা মাত্র পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা ৩জন ব্যক্তি প্রাইভেট কার থেকে নেমে এসে মহিলার হাতে থাকা ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে সিলেটের উদ্দেশ্যে পালিয়ে যায়।

পরে উপেজলার হেতিমগঞ্জের হিলালপুর নামক স্থানে একটি কারের সাথে ধাক্কা খেয়ে গাড়ীটি আটকা পড়ে। তখন পুলিশ নায়েব আলী নামে এক ছিনতাইকারী কে আটক ও ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্টো-গ ১৩-০০৩০) জব্দ করলেও বাকিরা পালিয়ে যায়।এঘটনায় ভূক্তভোগী মহিলা বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open