স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর আত্মহত্যা


সুরমা টাইমস ডেস্কঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।দীপালি দেব (৩৩) নামের ওই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা পুলিশ।দীপালির পরিবারের অভিযোগ, স্বামীর মানসিক নির্যাতনে তিনি আত্মহত্যা করেন।যদিও এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্বামী বিবেকানন্দ অর্জুন।শুক্রবার (২ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নের জেটি রোডের বাবার বাড়ি থেকে দীপালির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের ভাই বাদল দেব বলেন আমার বোনকে তাঁর স্বামী প্রায় তিন বছর ধরে বাবার বাড়িতে ফেলে রেখেছেন৷বোনের একটি ছেলে রয়েছে। সেই ছেলের সাথেও দেখা করতে দিতেন না স্বামী।এছাড়া বিভিন্ন সময় আমার বোনকে মানসিকভাবে অত্যাচার করতেন।আজ আমার বোনের সাথে তাঁর সন্তানের দেখা করার কথা ছিলো কিন্তু বোনজামাই সন্তানের সাথে ওকে দেখা করতে দেননি। এরপর সন্ধ্যায় বাসায় এসে সে আত্নহত্যা করে৷

তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে নিহতের স্বামী বিবেকানন্দ অর্জুন বলেন আমার স্ত্রী মানসিকভাবে অসুস্থ তাই গত দু’বছর ধরে তাকে আমার শ্বশুড়বাড়িতে রেখেছি৷ সন্তানকে আটকে রাখার বিষয়টিও সঠিক নয় বলে জানান তিনি৷শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মনিরুল ইসলাম বলেন প্রাথমিকভাবে আমরা ঘটনাটিকে আত্নহত্যা বলে ধারনা করছি লাশের ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর আসল কারন জানা যাবে৷

শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানা সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোর ডটকমককে বলেন নিহত নারীর ভাই সিলেট থেকে আসার পর আমরা হাসপাতাল থেকে লাশ থানায় নিয়ে আসবো।শনিবার সকালে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে৷
এ ব্যাপারে এখনও কোন মামলা বা অভিযোগ থানায় কেউ করেনি বলে জানান তিনি৷

Sharing is caring!

Loading...
Open