২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত আরও ৬৮৩ জন: স্বাস্থ্য অধিদফতর

নিউজ ডেস্ক:: সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৬৮৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

শনিবার (২৭ জুলাই) বেলা সাড়ে ৪টায় এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

রাজধানী ঢাকায় শুধুমাত্র ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালেই গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন। শনিবার (২৭ জুলাই) সকাল ১০টা পর্যন্ত ঢামেক হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ৬৪৮ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী এ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৩ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হওয়ায় হাসপাতালের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি হয়েছে। বহির্বিভাগ, নতুন ভবন, জরুরি বিভাগ সব জায়গাতেই ডেঙ্গু রোগী পাওয়া যাচ্ছে।

হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, এ বছর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী আসা শুরু থেকে এই পর্যন্ত হাসপাতালে ২৩৩ জন ভর্তির এটি একটি রেকর্ড।

হাসপাতালের নতুন ভবনসহ পুরনো ভবনের শিশু ওয়ার্ডগুলোও এখন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীতে পূর্ণ হয়ে গেছে। তবে চিকিৎসকরা ২৪ ঘণ্টায় সফলভাবে রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এ দিকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে শুধুমাত্র চলতি জুলাই মাসেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৭ হাজার ৫১৩ জন রোগী। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, জুলাই মাসের ২২ তারিখে ৪০৩ জন, ২৩ তারিখে ৪৭৩ জন, ২৪ তারিখে ৫৬০ জন, ২৫ তারিখে ৫৪৭ জন এবং ২৬ তারিখে ৩৯০ জন ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তবে এই হিসাবের বাইরে রয়েছে আরও প্রচুর ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী। কেননা শুধুমাত্র সে সকল ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীরাই হাসপাতালে ভর্তি হয়, যাদের রক্তে প্লাটিলেটের পরিমাণ ভয়ানকভাবে কমে যায়।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে গতকাল ঢাকায় মারা গেছে দুইজন, এর মধ্যে একজন নারী চিকিৎসক অন্যজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের এক শিক্ষার্থী। এছাড়াও রাজশাহীতে সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় আছেন এক পুলিশ সদস্য।

এর আগে শুক্রবার (২৬ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দৈনিক প্রতিবেদনে জানানো হয়, মোট ৩৯০ জন রোগীর মধ্যে ঢাকা শহরের বাইরে ঢাকা বিভাগের জেলা শহরে ১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৩ জন ও খুলনা বিভাগে ২ জন রোগী ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

ঢাকা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৩৭৪ জন। এদের মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ১৩৬ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতাল ৮ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল ২২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এছাড়াও হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৯ জন, বারডেম হাসপাতালে ৪ জন, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ৩৭ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪১ জন, পিলখানা বিজিবি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩ জন রোগী।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ঢাকা শহরের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে নতুনভাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ১১৪ জন রোগী। এদের মধ্যে ধানমন্ডি ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১১ জন, স্কয়ার হাসপাতালে ৯ জন, সেন্ট্রাল হাসপাতালে ৩০ জন, কাকরাইল ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ২৪ জন রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

এছাড়াও ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৮ জন, সালাউদ্দিন হাসপাতালে ১৭ জন, পপুলার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন।

তবে আশঙ্কার বিষয় হচ্ছে, শুধুমাত্র ঢাকাতেই না ঢাকার বাইরেও বেড়ে চলছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। বুধবার পর্যন্ত রোগীর সংখ্যা ১০ জন থাকলেও শুক্রবার বৃদ্ধি পেয়ে ২৬ জন হয়েছে। তাদের মধ্যে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন এক পুলিশ কনস্টেবল। তার নাম আতিক হাসান (২৫)। আতিকের বাড়ি জয়পুরহাট জেলার তিলেবপুর ইউনিয়নের কয়াসসোবলা গ্রামে। বুধবার দুপুর ১২টা থেকে তাকে রামেকের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ)-তে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা জানান, আতিক বগুড়া পুলিশ লাইনে কনস্টেবল পদে কর্মরত আছেন। তবে দুই মাসের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণে পাবনায় কর্মরত আছেন।

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ২৮ জন রোগী চিকিৎসাধীন। গত তিন-চার দিনে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে বেশ কিছু রোগী ভর্তি হন। এদের মধ্যে ১৬ জনের শরীরে ডেঙ্গুর জীবাণু মিলেছে। তারা হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে চিকিৎসাধীন।

Sharing is caring!

Loading...
Open