নগরীতে শাহপরাণ থানা পুলিশের মাইকিং : গুজবে কান দেবেন না

সুরমা টাইমস ডেস্কঃ সম্প্রতি ‘পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে’এই গুজবকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে গণপিটুনিতে বেশ কয়েকজন নিহত হবার ঘটনা ঘটেছে। ফলে জনমনে বিরাজ করছে আতঙ্ক। অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের স্কুল-মাদ্রাসায় পাঠাচ্ছেন না ভয়ে।এমন অবস্থায় জনসচেতনতা বাড়াতে নগরীতে বিশেষ প্রচারণা চালাচ্ছেন সিলেট মেট্ট্রোপলিটন পুলিশের শাহপরাণ(রহঃ)থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী ।

তার নির্দেশে বিশেষ সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তির অংশ হিসেবে সিলেট নগরীতে মাইকিং করা হয়েছে।সোমবার সকাল ১০ টা থেকে ইসলামপুর,মেজরটিলা,টিলাগড়,বালুচর,শাহজালালউপশহর,শিবগঞ্জ,খাদিমপাড়া,শাহপরানগেইট,দাসপাড়া,পীরেরবাজার,বটেশ্বর,
সহ নগরীর বিভিন্নস্থানে জনকন্ঠে মাইকিং করে শাহপরাণ থানা পুলিশ। মাইকিংকালে বলা হয়,

পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা ও রক্ত লাগবে’এই গুজবকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধন সন্দেহে বেশ কয়েকজন নিহতের ঘটনা ঘটেছে। দেশবাসীর জ্ঞাতার্থে জানানো যাচ্ছে যে,এটি সম্পূর্ণরুপে একটি গুজব।

কোনো প্রকার গুজবে কান দেবেন না এবং গুজব ছড়িয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করবেন না। সেই সাথে নগরবাসীকে অনুরোধ করা যাচ্ছে যে, গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না।এধরণের গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের শামিল এবং গণপিটুনি দিয়ে মৃত্যু ঘটানো গুরুতর ফৌজদারী অপরাধ।
আসুন আমরা সকলে সচেতন হই ও গুজব ছড়ানো এবং গুজবে কান দেয়া থেকে বিরত থাকি।

কাউকে ছেলেধরা হিসেবে সন্দেহ হলে গণপিটুনি না দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেই।এ ব্যপারে শাহপরাণ(রহঃ)থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, ছেলেধরার বিষয়টি সম্পূর্ণ গুজব, এর কোনো সত্যতা নেই। নগরীতে এ ধরণের কোনো ঘটনা ঘটলে সাথে সাথে শাহপরাণ(রহঃ)থানা পুলিশকে জানানোর জন্য আহবান করেন তিনি। অপপ্রচার ও গুজব সৃষ্টিকারীদের কোন ভাবে ছাড় দেয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open