বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা, নাগরিক দুর্ভোগ চরমে


সুরমা টাইমস ডেস্কঃ কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাত ও জলাবদ্ধতার কারণে কানাইঘাট বাজারসহ পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশন ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। এতে কানাইঘাট বাজারের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বৃষ্টির পানি ঢুকে ক্ষতিসাধন হচ্ছে চাল-ডালসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর।

শিক্ষার্থীদের হাঁটুপানিতে ডিঙিয়ে যেতে হচ্ছে স্কুল-কলেজে।পৌরসভার প্রাণকেন্দ্র কানাইঘাট বাজারের পশ্চিম-উত্তর এলাকার নিচু ফসলী জমির উপর বহু দালানকোঠা, ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। পৌরসভার থানা সংলগ্ন গাজী বোরহান উদ্দিন সড়কে অবস্থিত একটি পুলের পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বহু আগে নিজেদের স্বার্থে প্রভাবশালীরা বন্ধ করে দেয়।

পৌরসভার একটি বড় এলাকার পানি ধরপড়ি নদী দিয়ে প্রবাহিত হতো, কিন্তু কয়েক বছর পূর্বে দারুল উলূম মাদ্রাসার সম্মুখে পানি প্রবাহের সেই পথ পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ায় বর্তমানে বৃষ্টি হলেই পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। জলাবদ্ধতার কারণে ময়লা-আবর্জনা জমে পানি নিষ্কাশনের ড্রেনগুলো এক প্রকার অকার্যকর হয়ে পড়েছে।

অনেকে জানিয়েছেন, পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে দেয়াই জলাবদ্ধতার মূল কারণ। এছাড়া পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না করেই ছোট ছোট রাস্তা তৈরি ও পৌর কর্তৃপক্ষের নির্দেশ ছাড়াই অপরিকল্পিতভাবে দালানকোঠা ও বাড়িঘর নির্মাণ করার কারণে বর্তমানে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।দেখা গেছে, সাম্প্রতিক সময়ে বৃষ্টিপাত হলেই পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ এলাকা বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায়।

অনেক বাসাবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নোংরা পানি ঢুকে পড়ে এবং কানাইঘাট বাজারসহ পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গিয়ে নাগরিক জীবনে বিড়ম্বনার সৃষ্টি হয়। পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় সম্প্রতি পৌর এলাকায় বসবাসরত অনেকে নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা ও পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিনের বরাবরে অভিযোগ পর্যন্ত দিয়েছেন।

ইতিপূর্বে উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশ ও মেয়রের উদ্যোগে জলাবদ্ধতা নিরসনে আংশিক পানি প্রবাহের পথ সুগম করা হলেও আবার সেই পানি প্রবাহের পথ বন্ধ করার জন্য নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে একটি মহল। পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিন পৌরসভার রাস্তাঘাটের অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড সাধিত করেছেন। কিন্তু নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতার কারণে পানি প্রবাহের পথ বন্ধ করে দেওয়ায় জলাবদ্ধতা নিরসনে এখন পর্যন্ত বাস্তব কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারেননি তিনি।

পৌরসভার উদ্যোগে কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নতি করা হলেও অধিকাংশ ড্রেনে ময়লা-আবর্জনা জমে পুরোপুরি পানি ও ময়লা-আবর্জনা অপসারণের পথ বন্ধ হয়ে পড়েছে।পৌরসভার অনেক নাগরিক জানিয়েছেন, পৌরসভার গুরুত্বপূর্ণ শহর এলাকার জলাবদ্ধতা দূর করতে হলে যারা পানি প্রবাহের পথ বন্ধ করে দিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। গাজী বোরহান উদ্দিন সড়কের পৌরসভার অংশের পুলের মুখ পুরোপুরি খুলে দেওয়া হোক, যাতে করে ধরপড়ি খাল দিয়ে পৌরসভার বড় অংশের পানি প্রবাহ হতে পারে। এ জন্য প্রতিবন্ধকতা দূর করতে প্রশাসনিক ব্যবস্থা পৌর কর্তৃপক্ষকে গ্রহণ করতে হবে।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, কানাইঘাট পৌরসভার জলাবদ্ধতা দূর করতে হলে সরকারি খালগুলো খনন করতে হবে। ইতিমধ্যে প্রশাসনের সহায়তায় পৌরসভার পক্ষ থেকে ধরপড়ি নদী খননের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এবং ডালাইচর গ্রামের মধ্য দিয়ে একটি ড্রেন আন্দু নদীতে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এ দু’টি কাজ সম্পন্ন করতে পারলে কানাইঘাট পৌরসভায় জলাবদ্ধতা দূর হবে। কিছুদিনের মধ্যে এ পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের জন্য তিনি চেষ্টা চালিয়ে যাবেন বলে জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open