শ্রীমঙ্গলে লাশবাহী গাড়ি আটকে টাকা দাবি: পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারে আল্টিমেটাম

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে লাশবাহী যান আটকে টাকা দাবি ও চালককে মারধরের ঘটনায় বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে।

রবিবার (১৬ই জুন) সন্ধ্যায় সিলেট জোন গাজীপুর রিজিওনের সহকারী পুলিশ সুপার শামসুল আলম সরকার শ্রীমঙ্গল থানায় ভুক্তভোগী চালক শাকিবুল ইসলাম শাকিলকে এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদ করেন। পরে সংশ্লিষ্ট শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করেন। আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না জানালেও তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি আরো যাচাই বাছাই করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট এসপি ও ডিআইজি চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন।

এসময় শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুছ ছালেক, হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ওসি লিয়াকত, ট্রাক, ট্যাংকলরি, কাভার্ড ভ্যান ও পিকআপ পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. নূর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান মিয়া, হবিগঞ্জ রোড সিএনজি গ্রুপের সভাপতি নূরুল ইসলাম, শ্রীমঙ্গল উপজেলা উপজেলা সিএনজি গ্রুপের সহ সম্পাদক সালাউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সন্ধ্যার পর শ্রমিক সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ এক অনির্ধারিত জরুরি সভা আহবান করে। সভায় তারা এই তদন্ত কাজের প্রতি অসন্তোষ জানিয়ে সাতগাঁও হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই নান্নু মন্ডলকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে ৪৮ ঘন্টার সময় বেঁধে দেন। শ্রমিক নেতৃবৃন্দ এই সময়ের মধ্যে দাবি মেনে নেয়া না হলে আগামী মঙ্গলবার সকাল থেকে কর্মবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নেন।

সভা শেষে শ্রমিক নেতা শাহজাহান মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা তদন্তকারী কর্মকর্তাকে সাফ জানিয়ে দিয়েছি, অভিযুক্ত কর্তকর্তা নান্নু মন্ডলকে প্রত্যাহারে কোন প্রকার টালবাহানা করা হলে সাধারন শ্রমিকরা মেনে নেবেন না’।

Sharing is caring!

Loading...
Open