ওসমানী জাদুঘরে অনুষ্ঠিত অনন্য পুরুষ ওসমানী শীর্ষক সেমিনার

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের উদ্যোগে ১৩ জুন ২০১৯ রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৫-০০ টায় সিলেটস্থ ওসমানী জাদুঘর প্রাঙ্গণে বঙ্গবীর জেনারেল এম এ জি ওসমানী স্মরণে -ওসমানী : ‘মুক্তিযুদ্ধের অনন্য পুরুষ’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী।

সেক্টর কমান্ডার ফোরাম সিলেট জেলার সভাপতি এডভোকেট সরওয়ার আহমদ চৌধুরী আবদাল, মনিপুরী ভাষার বিশিষ্ট লেখক ও সংস্কৃতিজন কবি এ কে শেরাম এবং বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের জনশিক্ষা বিভাগের কীপার বিশিষ্ট কবি এবং লেখক ড. শিহাব শাহরিয়ার। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কবি ও রাগীব রাবেয়া ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক খালেদ উদ-দীন। সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা প্রশাসক জনাব এম কাজী এমদাদুল ইসলাম। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাশেদুল আলম প্রদীপ, অডিটরিয়াম ম্যানেজার, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মো. জিয়ারত হোসেন খান, সহকারী কীপার, ওসমানী জাদুঘর, সিলেট। সঞ্চালনা করেন সাইদ সামসুল করিম, শিক্ষা অফিসার, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর। মুক্তিযোদ্ধা, এডভোকেট, রফিকুল হক।

মহান মুক্তিযুদ্ধে ওসমানীর অবদান তুলে ধরে প্রবন্ধকার কবি খালেদ উদ-দীন বলেন, বঙ্গবন্ধুর আহবানে সাড়া দিয়ে যে কয় জন মহান পুরুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন এবং মুক্তিযুদ্ধ সংগঠন গড়ে তুলতেনেতৃত্ব দিয়েছিল বঙ্গবীর ওসমানী তাদের মধ্যে অন্যতম। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে ওসমানী বাঙ্গালীর হৃদয়ে মুক্তিযুদ্ধের অনন্য পুরুষ হিসেবে চিরভাস্বর হয়ে থাকবে।

প্রাধান অতিথি সিলেট বিভাগীয় কমিশনার জনাব মেজবাহ্ উদ্দীন চৌধুরী এম এ জি ওসমানীর অবদানকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করতে সিলেটের বিশিষ্ট জনদের আহবান জানান। অনুষ্ঠানের সভাপতি সিলেট জেলা প্রশাসক জনাব এম কাজী এমদাদুল ইসলাম ওসমানীর অবদানকে আগামী প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, এই অকুতোভয় সৈনিকের জীবন আচরন এবং কর্মপরিধি তুলে ধরতে পারলে আগামী প্রজন্ম নিজেদেও যোগ্য নাগরিক গড়ে তুলে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াতে পারবে।বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open