নগরীতে পুলিশকে মারধরকারী দুই যুবককে কারাগারে প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক::
সিলেটের জিন্দাবাজারে দুই পুলিশ সদস্যকে মারধরকারী দুই যুবককে শনিবার (১লা জুন) কারাগারে প্রেরণ করেছে আদালত। তারা হলো, বিশ্বনাথ উপজেলার মুছিরগাঁও গ্রামের আলমাছ আলীর ছেলে মো. ইমন ও কানাইঘাটের দুর্লভপুর গ্রামের (বর্তমানে ৯৭ সওদাগরটুলা) মুস্তাকিম আলীর ছেলে মো. রাজ মিয়া। শুক্রবার (৩১শে মে) বিকাল ৫ টায় নগরীর জিন্দাবাজারের কাজী ম্যানশনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।
এসময় উপস্থিত জনতা দুই যুবককে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। জানা যায় জানান, শুক্রবার (৩১ মে) বিকাল ৫ টায় জিন্দাবাজার এলাকায় যানজটে আটকা পড়েছিলো মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-দক্ষিণ) সুদীপ দাস এর গাড়ি। তখন পিছন থেকে মোটর সাইকেল আরোহী কয়েকজন একাধারে যুবক হর্ণ বাজাচ্ছিল। এক পর্যায়ের পুলিশের গাড়ির ড্রাইভার মানব দাসকে সাইড না দেওয়ার কারণ জানতে চায় যুবকরা। তখন পুলিশের গাড়ির ড্রাইভার বলেন, ‘ভাই সামনে জ্যাম, কিভাবে সাইড দেব’? তখনই যুবকরা উত্তেজিত হয়ে পুলিশের গাড়ির ড্রাইভারকে মারধোর করতে থাকে।
এ অবস্থায় পুলিশের গাড়িতে থাকা এডিসির সাথে থাকা পুলিশ সদস্য মো. শামীমুল ইসলাম গাড়ি থেকে নেমে আসলে যুবকরা তাকে গাড়ি থেকে নিচে নেমে আসার কারণ জানতে চান। তখন শামীমুল জানান তারা পুলিশের সদস্য। পুলিশ শোনে যুবকরা আরো উত্তেজিত হয়ে ‘তোরা পুলিশ, তে মাইর খা’ বলেই দু’জনকেই মারধোর করতে থাকে। এসময় স্থানীয়রা তাদের দুজনকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এছাড়া আরওয়ান ৫ ও ইয়ামা এফজেড এসবি২ মডেলের দুটি বাইকও জব্দ করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।
এ ব্যপারে কোতয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম মিয়া বলেন- আটককৃত ওই দুই যুবককে শনিবার আদালতে প্রেরন করলে বিজ্ঞ আদালত তাদের জেল হাজতে পাঠান।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close