সিলেট কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক;: দক্ষিণ সুরমার আলমপুরে অবস্থিত সিলেট সরকারী কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের শিক্ষার্থীদের ওপর বহিরাগত সন্ত্রাসীরা সশস্ত্র হামলা চালিয়ে আহত করেছে বলে জানা গেছে। গতকাল শনিবার বিকাল ৫ টার সময় ৪/৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী দল ধারালো দা, লোহার রড হাতে নিয়ে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আইটি লেভেলের কয়েকজন শিক্ষার্থীর ওপর আক্রমণ শুরু করে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বিকাল ৫ টায় ক্লাস শেষে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস থেকে বাসায় ফেরার অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় ৪/৫ জনের একদল সন্ত্রাসী ক্যাম্পাসে ঢুকে একজন ছেলে শিক্ষার্থীকে সন্ত্রাসীরা ডাক দেয়। তাদের ডাকে সাড়া না দেয়ায় অস্ত্র উচিয়ে ঐ শিক্ষার্থীকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে যায় পার্শ্ববর্তী সিএনজি পাম্পের সামনে। সেখানে নিয়ে ঐ শিক্ষার্থীকে সন্ত্রাসীরা দা, লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। এ খবর পেয়ে ঐ শিক্ষার্থীর আরেক বন্ধু ক্যাম্পাস থেকে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা রাজু নামক শিক্ষার্থীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করে ফেলে। তবে একটি বিশ্বস্থ সূত্র জানায়, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ক্লাস শেষে ছুটি হওয়ার সময় শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বের হলে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা অস্ত্র উচিয়ে দুইজন ছেলে শিক্ষার্থীকে ধরার জন্য ধাওয়া করছিল। বেলা আড়াইটার সময় কয়েকজন প্রশিক্ষণার্থী ছেলেমেয়ে ক্লাস শুরুর আগে ক্যাম্পাসে এসে আড্ডা করেছিল। এর জের ধরে সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায় বলে তাদের ধারণা। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের চীফ ইন্সক্ট্রাক্টর মোজাফফর ঘটনা সম্পর্কে অবহিত থাকলেও তিনি আইনগত পদক্ষেপ নেননি বলে অভিযোগ উঠে। প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রিন্সিপাল ওয়ালী উল্লাহ মোল্লার মুঠো ফোনে এ প্রতিবেদক ঘটনাটি জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের এক মেয়ে শিক্ষার্থীর সাথে বহিরাগত এক ছেলের পূর্ব সম্পর্ক ছিল। পরবর্তীতে ঐ মেয়ে প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আরেক ছেলে শিক্ষার্থীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলার জেরে এই ঘটনা ঘটে। তিনি বলেন, কারিগরী শিক্ষার্থী যারা সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে তাদের কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে তিনি আইনগত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open