আজ অনুষ্টিত হচ্ছেনা ছাতকের সিংচাপইড় ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকের সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষনা করা হয়েছে। গত ২৬শে ফেব্রুয়ারী নির্বাচন কমিশন থেকে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশের রায়ের কপি (রিট পিটিশন নং-১০৪৮৫/২০১৮) ছাতক উপজেলা নির্বাচন অফিসে পৌছলে গতকাল বুধবার পূর্ব ঘোষিত এ উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষনা করা হয়। নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে একটি গন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলের করা রিটের ওপর শুনানি শেষে গত ১৯শে ফেব্রুয়ারী সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেন আদালত। পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ী আজ ২৮শে ফেব্রুয়ারী উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। গত ২৩শে জানুয়ারি এখানে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করার হয়। এর পর ইতোমধ্যে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীকও বরাদ্ধ করে নির্বাচন কমিশন। তবে ইউপি চেয়ারম্যান সাহেলের করা রিটের শুনানী শেষে নির্বাচন স্থগিতাদেশের কারনে ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কোন সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন বাদি পক্ষের আইনজীবী আব্দুল মতিন খসরু। তিনি বলেন, রিটের নিস্পত্তি না করে স্থানীয় সরকার বিভাগ উপ-নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করে। ফলে আদালত নির্বাচন স্থগিত করেন। বরখাস্ত হওয়া ঐ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেল এখন স্বপদে ফিরতে আর কোনো বাধা নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ছাতক উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউপি চেয়ারম্যানের উপর হামলা, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কক্ষে অবস্থান নিয়ে ফেইসবুকে লাইভ সম্প্রচার ও একটি মামলায় সাজার অভিযোগে সাহাব উদ্দিন সাহেলকে গত বছরের ১৫ই জুলাই সাময়িক বহিস্কার করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। পরবর্তীতে তাকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়। বহিস্কারের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে রিট পিটিশন (১০৪৮৫/২০১৮) করেন সাহেল। রিটের পর তিনি স্বপদে ফিরেন। পরবর্তীতে আবার ওই রিট ব্যাকেট করা হয়। ওই সময় রিটের নিস্পত্তির জন্য ৮ সপ্তাহের সময় নেয় স্থানীয় সরকার বিভাগ। কিন্তু সময়ের মধ্যে কোনো জবাব না দেওয়ায় আদালত রুলও জারি করেন। রুলের জবাব কিংবা নিস্পত্তি না করে নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষনা করায় মঙ্গলবার ৬ মাসের জন্য তা স্থগিত করেন আদালত।

এদিকে, এর আগে গত সোমবার (২৫শে ফেব্রুয়ারী) দুপুরে বরখাস্তকৃত ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলের পক্ষে ছাতক পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম বাসিত ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে সিংচাপইড় ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচন স্থগিতাদেশের উচ্চ আদালতের রায়ের নমুনা কপি (রিট পিটিশন নং-১০৪৮৫/২০১৮) হস্থান্তর করেন। বাসিত অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় রায়ের কপিটি গ্রহণ করলেও ছাতক উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোজাম্মেল হক রায়ের কপি গ্রহণ করতে আপত্তি দেখান। পরে অনেক তর্কালোচনার মাধ্যমে তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী জামিল আহমদের কাছে উচ্চ আদালতের রয়ের কপি হস্থান্তর করতে সক্ষম হই।
এব্যাপরে জানতে চাইলে, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক বলেন, নির্বাচন স্থগিতাদেশের উচ্চ আদালতের রায়ের (রিট পিটিশন নং-১০৪৮৫/২০১৮) কপি, গত ২৬শে ফেব্রুয়ারী ছাতকে এসে পৌছে। পরে ২৭শে ফেব্রুয়ারী গন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে (পূর্ব ঘোষিত ২৮শে ফেব্রুয়ারীর) সিংচাপইড়ই উনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষনা করা হয়েছে। নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়টি নির্বাচন অফিসের নোটিস বোর্ডে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকার্তার কার্যালয়ের নোটিস বোর্ডে ও ইউনিয়ন পরিষদের নোটিস বোর্ডে গন বিজ্ঞপ্তি প্রচার করাসহ ইউপি সচিবের মাধ্যমে, উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দি সকল চেয়ারম্যান প্রার্থীদেরকে নির্বাচন স্থগিত হওয়ার বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open