বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা শাখার বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ন্যুনতম ৩৫ করার দাবিতে সারা দেশের ন্যায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে আজ শনিবার সকাল ১১টায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সিলেটের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ও চাকরিপ্রার্থীরা উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের চাকরিতে প্রবেশের বয়স উদাহরণ টেনে বলেন, গড় আয়ূ যখন ৪৫ ছিল তখন চাকরিতে প্রবেশের বয়স ছিল ২৭। এখন গড় আয়ু ৭১.৭১ কিন্তু প্রবেশের বয়স ৩০ ই-রয়েছে গেছে। যেখানে সেশনজট নামক বিষগিট্টুতে আটকা পড়ে কর্মহীন এক অসহায় জীবন লিড করছে লক্ষ লক্ষ বেকারদের। সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়েল গ্র্যাজুয়েটদের আত্মহত্যার সংবাদও এদেশে প্রকাশিত হয়েছে। তারা বলেন, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী, এমপি থেকে শুরু করে বিরোধী দলীয় নেতা পর্যন্ত এই দাবির স্বপক্ষে যুক্তি উত্থাপন করে মহান জাতীয় সংসদে বক্তব্য রাখলেও সরকার বাহাদুর প্রবেশের বয়স বৃদ্ধি না করে বরং অবসরের বয়স বার বার বৃদ্ধি করছেন। যা ছাত্রছাত্রীর জন্য চরম হতাশাজনক। মাদার অব হিউম্যানিটি খ্যাত জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে এই তরুণ জনগোষ্ঠী অবদান রাখতে চায় বলে বক্তারা উল্লেখ করেন। জাতীয় যুবনীতি ৩৫ হওয়া স্বত্ত্বেও চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ কেন? বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ সিলেট বিভাগের সিনিয়র সহ সভাপতি নিলয় গোস্বামীর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন পল্লব ভট্টাচার্য্য, শরিফ গাজী, সিলেট জেলা শাখার সভাপতি পুলক কান্ত দাস, সহ-সভাপতি নিরুপম কান্ত দাস(অলক) সাধারণ সম্পাদক অতি রঞ্জন দাস, অর্থ সম্পাদক রাহুল দাস, জলি আক্তার, বিমান দাস, সামাদুল ইসলাম, আফজাল হোসাইন, শুয়েব আহমদ, মিজানুর রহমান, মোঃ ইব্রাহিম , মাসুম আহমেদ , সাজ্জাদ খান প্রমুখ।–বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open